default-image

তপ্ত দুপুরে বাইরে থেকে এসে একটু ঠান্ডা হতে চাচ্ছেন। কিন্তু এসির রিমোট কন্ট্রোল (দূরনিয়ন্ত্রণ) যন্ত্রটি খুঁজে পাচ্ছেন না। তখন কেমন লাগবে আপনার? যারা এমন সমস্যায় মাঝেমধ্যে পড়েন, তাদের জন্য সুখবর। দেশি প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন বাজারে নিয়ে এসেছে ‘ভয়েস কন্ট্রোল’ এসি। রিমোট ছাড়াই মুখের কথাতেই চলবে–থামবে এসি। শুধু ওয়ালটনেই নয়, দেশে বর্তমানে আধুনিক প্রযুক্তিসমৃদ্ধ এয়ারকন্ডিশনার (এসি) আছে নানা ব্র্যান্ডের। চাহিদা বাড়ায় ভিন্নতাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে।

এসিতে সর্বশেষ প্রযুক্তি

বাংলাদেশি বহুজাতিক ব্র্যান্ড ওয়ালটন ইন্টারনেট অব থিংস—আইওটিনির্ভর স্মার্ট শীতাতপনিয়ন্ত্রণ যন্ত্র নিয়ে এসেছে। এই এসি নিয়ন্ত্রণ করা যায় কথা বলে ও মুঠোফোনে। ‘আমাজন ইকো’র মতো যন্ত্র দিয়েও এটি নিয়ন্ত্রণ করা যায়। এসিতে বিল বাড়ছে কেমন, বিদ্যুৎ প্রবাহ কম না বেশি, কম্প্রেসর কি বেশি (ওভারলোডেড) চলছে? মনের মধ্যে থাকা এসব প্রশ্নের উত্তর মিলবে এই স্মার্ট এসিতে। ওয়ালটন গ্রুপের অতিরিক্ত কার্যকরী পরিচালক (পিআর, মিডিয়া ও ব্র্যান্ডিং) মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘ওয়ালটন স্মার্ট এসিতে সংযোজিত হয়েছে ইনভার্টার প্রযুক্তির কম্প্রেসর। ফলে এই এসি ঘরের ভেতরের তাপমাত্রা বুঝে সেই অনুযায়ী রেফ্রিজারেন্ট সরবরাহ করে। ঘর ঠান্ডা হয়ে গেলে কম্প্রেসর নিষ্ক্রিয় অবস্থায় থাকে। প্রয়োজন অনুযায়ী তাপমাত্রা সরবরাহ করে, তাই এতে বিদ্যুৎ খরচ অনেক কম হয়। বাড়ে কম্প্রেসরের স্থায়িত্ব।’

গরমে ভরসা যেসব এসিতে

ওয়ালটন: ওয়ালটনের স্মার্ট এসিতে এ বছর ভয়েস কমান্ড, আয়োনাইজার, অ্যান্টিভাইরাল, ফ্রস্ট ক্লিনের মতো অত্যাধুনিক বৈশিষ্ট্য যোগ করা হয়েছে। নতুন মডেলের এই এসিগুলোতে ইনভার্টারও রয়েছে। কেনার সময় পাওয়া যাবে টাকা ফেরত (ক্যাশব্যাক) ও মূল্যছাড়। মোস্তাফিজুর রহমান জানালেন, গত বছরের জানুয়ারি থেকে এপ্রিল মাসের তুলনায় চলতি বছরের একই সময়ে ওয়ালটন এসির বিক্রি বেড়েছে ৪৫০ গুণ।

ওয়ালটন এসিতে ক্রেতাদের ২০০ শতাংশ পর্যন্ত টাকা ফেরত, বিনা মূল্যে হোম ডেলিভারি ও ইনস্টলেশন সুবিধা দিচ্ছে। স্থানীয় বাজারে এ বছর ইউরোপীয় ডিজাইনের ১ টন, দেড় টন ও ২ টনের নতুন মডেলের স্প্লিট এসি এনেছে ওয়ালটন। বাজারে রয়েছে ওয়ালটন ওশেনাস সিরিজের নতুন মডেলের এসি; যা কথা বলে এসি নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। যেখানে ‘হ্যালো ওয়ালটন’ বললে এসির ‘অ্যাকটিভ মোড’ সক্রিয় হবে। এরপর ‘এসি স্টার্ট’ বললে এসি চালু হবে।

অনলাইনে দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে ডিজিটাল ডেটাবেইস তৈরি করছে ওয়ালটন। এ জন্য প্রতিষ্ঠান ডিজিটাল প্রচারণা চালাচ্ছে। এর আওতায় যেকোনো মডেলের এসি কিনে নিবন্ধন করলেই ক্রেতারা পেতে পারেন ১২ বছর পর্যন্ত বিনা মূল্যে বিদ্যুৎ বিল।

ট্রান্সটেক: ট্রান্সকম ডিজিটালে ট্রান্সটেক ব্র্যান্ডের এসি পাওয়া যাচ্ছে। ২৭টি ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ট্রান্সটেক এসি কেনার সুযোগ রয়েছে। এ ছাড়া ৬ থেকে ৩৬ মাসের কিস্তিতে এসি কেনার সুযোগ রয়েছে। ৬ মাসের কিস্তির ক্ষেত্রে কোনো বাড়তি ইন্টারেস্ট দিতে হবে না।

স্যামসাং: ১০ বছরের কম্প্রেসর ওয়ারেন্টি নিয়ে ইনভার্টার এসি বাজারে এনেছে স্যামসাং। ৬৮ শতাংশ পর্যন্ত বিদ্যুৎ সাশ্রয় করবে এই এসিগুলো। বিশেষ মূল্যছাড়ও রয়েছে তাদের শোরুম ও অনলাইন শপে। মান ও পরিমাণের ওপর স্যামসাংয়ের এসির দাম নির্ভর করে।

এলজি: আধুনিক প্রযুক্তির ইনভার্টার এসি আছে এলজি ব্র্যান্ডেরও। এই ইনভার্টার এসিগুলো মূলত বিদ্যুৎসাশ্রয়ী হয়ে থাকে। এলজি ডুয়েল ইনভার্টার প্রযুক্তির এসি ৭০ শতাংশ পর্যন্ত বিদ্যুৎসাশ্রয়ী। এ ছাড়া তাদের এই এসিগুলোর বিশেষ সুবিধা হিসেবে রয়েছে ওয়াই-ফাই ও মশারোধক ব্যবস্থা। এসিগুলোর কম্প্রেসরের ওয়ারেন্টি ১০ বছর। সঙ্গে রয়েছে এক বছরের যন্ত্রাংশ ও সার্ভিস ওয়ারেন্টি। কিস্তিতে কেনার সুবিধাও দিচ্ছে এলজি।

পাওয়া যাবে কোথায়

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম মার্কেট, গুলশান, ধানমন্ডি, বসুন্ধরা, বনানী, রামপুরা, কাকরাইল, পুরান ঢাকা, শ্যামলী, মিরপুর, উত্তরাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা শহরে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের শোরুমে এয়ারকন্ডিশনার পাওয়া যায়।

বিজ্ঞাপন
প্র অধুনা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন