মনের বাক্স
মনের বাক্স

ভাঙা মন নিয়ে

কেন এমন হয়? একজন মানুষ কী করে পারে আরেকজন মানুষের অনুভূতি নিয়ে খেলতে? ভালোবাসার কী নিখুঁত অভিনয়! একবারও ভাবলে না কারও মন ভাঙা আর একটা উপাসনালয় ভাঙা সমান। তোমার মনের ভেতর কি একটুও ভয় কাজ করে না? মনে হয় না, আজ আমি একজনের মন নিয়ে খেলছি, কাল আমার সঙ্গেও তো এমন হতে পারে! কী অদ্ভুত মানুষের মন!

অবন্তী পিয়া

দূর থেকে তোমায় ভালোবাসি

সরাসরি তোমার সঙ্গে কথা হয়নি কোনোদিন। দেখাও হয়নি। তারপরও তোমায় কত্ত আপন মনে হয়। আমার সমস্ত ইন্দ্রিয় তোমায় অনুভব করে। বেঁচে থাকার এমন জীবন্ত অনুভূতি এর আগে কোনোদিন হয়নি। আগে কখনো বুঝিনি ভালোবাসা মানে। তোমার জন্যেই বুঝেছি, ঠিক কতটা বেঁচে আছি। এভাবে কখনো ইচ্ছে হয়নি শুধু কারও কথা শুনে, হাসি শুনে সারাটা জীবন কাটিয়ে দিতে। তোমার শিকড় আমার মনের গভীরে গেড়ে বসেছে যে, না চাইলেও তোমায় মনে পড়ে সারাক্ষণ। তাসনিম, ভালোবাসি তোমাকে।

আনোয়ার অর্ক, মোহাম্মদপুর, ঢাকা

বলার সাহস হয়নি

ভালোবাসি, তবু বলতে পারি না। তৃতীয় শ্রেণিতে তোমার সঙ্গে প্রথম দেখা। ওই সময় কেন জানি তোমার সঙ্গে শুধু ঝগড়া করতে খুব ভালো লাগত। এই ভালো লাগা যে হঠাৎ ভালোবাসায় রূপ নেবে, এটা কখনো ভাবিনি। মনের অজান্তে তোমাকে অনেক বেশি ভালোবেসে ফেলেছি। কিন্তু আজও তোমাকে বলার সাহস পাইনি। তোমার সঙ্গে কাটানো প্রতিটা সময় আজও আমার মনে আছে। কিছুদিন আগে পথে তোমাকে দেখলাম। খুব ভালো লাগল। তোমাকে অনেক কিছু বলার ছিল, কিন্তু বলতে পারিনি। তবে আজ আর ভয় করব না। মনের বাক্সের মাধ্যমে লিখে জানাচ্ছি, নিজের চেয়েও তোমাকে বেশি ভালোবাসি। সারা জীবন কোনো দ্বিধা ছাড়া তোমাকে ভালোবাসতে চাই।

নিশান, পার্বতীপুর

বিজ্ঞাপন

লেখা পাঠানোর ঠিকানা

অধুনা, প্রথম আলো, প্রগতি ইনস্যুরেন্স ভবন, ২০–২১ কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।

ই-মেইল: [email protected], ফেসবুক: facebook.com/adhuna.PA খামের ওপর ও ই-মেইলের subject–এ লিখুন ‘মনের বাক্স’

প্র অধুনা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন