অনেকেরই একটা গোপন চাওয়া থাকে, নিজের শারীরিক উচ্চতা যেন বেশি হয়। এই চাওয়া অনেকটা পরিবেশে বা সমাজের কারণেই। তবে শারীরিক উচ্চতা নির্ভর করে বেশ কয়েকটি বিষয়ের ওপর। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কারণ জিনগত, খাদ্যাভাস, পুষ্টি ও পরিবেশ। আর একজন মানুষের উচ্চতা বাড়ে একটা নির্দিষ্ট সময়, অর্থাৎ বয়স পর্যন্ত। বিশেষ করে শৈশব–কৈশোর ও তারুণ্যের শুরু পর্যন্ত মানুষের উচ্চতা বাড়ে। তাই এই সময়ে সঠিক পুষ্টির পাশাপাশি কিছু যোগব্যায়ামে ভালো ফল মেলে।

মূল যে উপাদানটি উচ্চতা বৃদ্ধি করে তার নাম হিউম্যান গ্রোথ হরমোন (এইচজিএইচ), যা নিসৃত হয় পিটুইটারি গ্রন্থি থেকে। সাধারণত বয়ঃসন্ধিকালে মানুষের উচ্চতা বেশি বাড়ে। এ সময় বিশেষ কিছু যোগাসনের নিয়মিত অভ্যাসের মাধ্যমে পিটুইটারি গ্ল্যান্ডকে উত্তেজিত করে ভালো উচ্চতা পাওয়া সম্ভব। নিয়মিত যোগাভ্যাসের মাধ্যমে উচ্চতা বাড়ানো সম্ভব। দেখে নিন উচ্চতা বাড়ানোর কিছু যোগাসন।

বিজ্ঞাপন
default-image

সর্বাঙ্গাসন

কীভাবে করবেন

চিত হয়ে সোজা শুয়ে পড়ুন। পা দুটি পরস্পরের সঙ্গে মিলে থাকবে। হাত দুটি দুই পাশে রেখে হাতের পাতা মাটির দিকে করে রাখুন। শ্বাস টেনে পা দুটি ধীরে ধীরে প্রথমে ৩০, তারপরে ৬০ এবং শেষে ৯০ ডিগ্রি পর্যন্ত ওপরের দিকে তুলুন, পা ওপরের দিকে তোলার সময় হাতের সহায়তা নিতে পারেন। ৯০ ডিগ্রি পর্যন্ত যদি সোজা না হয়, তাহলে ১২০ ডিগ্রি পর্যন্ত পা নিয়ে গিয়ে হাত দুটি তুলে কোমরের সঙ্গে লাগান। হাতের কনুই মাটির সঙ্গে লেগে থাকবে এবং দুটি পা একসঙ্গে মিলিয়ে সোজা করে রাখুন। পায়ের পাতা ওপরের দিকে উঠে থাকবে এবং চোখ বন্ধ থাকবে অথবা পায়ের বুড়ো আঙুলের ওপর দৃষ্টি রাখুন। আসন থেকে ফিরে আসার সময় পা দুটি সোজা রেখে পেছনের দিকে একটু ঝোঁকান। এরপর আস্তে আস্তে পিঠ, তারপর কোমর ও নিতম্ব মাটিতে নামিয়ে ফেলুনযতটা সময় সর্বাঙ্গাসন করবেন, ততক্ষণ শবাসনে বিশ্রাম নিন।

সময়কাল

প্রথমে ৩০ সেকেন্ড করে ৪-৫ বার করুন। পরবর্তী সময়ে টানা ২ মিনিট থাকার চেষ্টা করুন। কিছুদিন পর টানা ৫ মিনিট থাকার চেষ্টা করুন। এই আসন আপনি ২ মিনিট থেকে শুরু করে টানা ৩০ মিনিট পর্যন্ত থাকতে পারেন।

উপকারিতা

এই আসনে থাইরয়েড এবং পিটুইটারি গ্রন্থি মুখ্য রূপে ক্রিয়াশীল হয়ে উঠায় এই আসন উচ্চতা বৃদ্ধিতে বিশেষ উপকারী প্রমাণিত হয়। এই আসনে দুর্বলতা, ক্লান্তির বিকার দূর হয়। এড্রিনাল, শুক্রগ্রন্থি এবং ডিম্বগ্রন্থিকে এই আসন শক্তিশালী করে তোলে।

default-image

তাড়াসন

উচ্চতা বৃদ্ধির জন্য খুব কার্যকর একটা আসন হলো তাড়াসন। তাই তাড়াসন প্রতিদিন নিয়ম মেনে করা উচিত। উচ্চতা বাড়ানো ছাড়াও আরও নানা উপকার রয়েছে তাড়াসনের।

কীভাবে করবেন

পায়ের পাতা দুটি পাশাপাশি রেখে সোজা হয়ে দাঁড়ান। লম্বা শ্বাস টেনে দুই হাত পাশের দিকে ওপরে তুলুন। হাত যেভাবে ওপরে উঠবে, পায়ের গোড়ালিও সেভাবে ওপরে উঠবে। শরীরের ভার পায়ের পাতার ওপরে থাকবে এবং শরীর ওপরের দিকে পুরো টান টান হয়ে থাকবে। চেষ্টা করবেন শরীরের ভর পায়ের পাতার পুরো অংশ থেকে ধীরে ধীরে পায়ের বৃদ্ধাঙ্গুলে সঞ্চালিত করতে। আসনে থাকা অবস্থায় শ্বাস-প্রশ্বাস খুব ধীরে ধীরে নিয়ন্ত্রিতভাবে নেবেন।

সময়কাল

প্রথমে চেষ্টা করবেন ৩০ সেকেন্ড আসনে থাকার। এরপর ধীরে ধীরে ৫ মিনিট এই আসনে টানা থাকবেন।

উপকারিতা

এই আসন উচ্চতা বাড়ানোর জন্য সবচেয়ে ভালো। এই আসনে সারা শরীরের স্নায়ু সক্রিয় এবং বিকশিত হয়ে ওঠে। তাড়াসনে লম্বা শ্বাস নেওয়ার ফলে ফুসফুস সুদৃঢ় এবং বিস্তৃত হয়ে ওঠে।

বিজ্ঞাপন
default-image

উষ্ট্রাসন

কীভাবে করবেন

বজ্রাসনে বসুন। এরপর দুই পায়ের মধ্যে একটু ফাঁকা রেখে পায়ের আঙুলগুলো ভেতরের দিকে দিয়ে গোড়ালি দাঁড় করিয়ে দিন। দুই গোড়ালির ওপরে হাত দুটি এমনভাবে রাখুন, যাতে বৃদ্ধাঙ্গুলি ভেতরের দিকে এবং বাকি আঙুলগুলো বাইরের দিকে থাকে। শ্বাস টেনে মাথা এবং গ্রীবা পেছন দিকে মুড়ে কোমর ওপরে তুলুন। আসন ছাড়ার সময় শ্বাস ছাড়তে ছাড়তে গোড়ালির ওপর বসে পড়ুন। আসনে থাকা অবস্থায় শ্বাস-প্রশ্বাস স্বাভাবিক থাকবে।

সময়কাল

১ মিনিট করে মোট পাঁচবার করুন।

উপকারিতা

মেরুদণ্ডকে নমনীয় করে উচ্চতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হিসেবে কাজ করে। এই আসন ফুসফুসের প্রকোষ্ঠকে সক্রিয় করে, যার ফলে হাঁপানির রোগীরা ভালো লাভ পাবেন। থাইরয়েড গ্রন্থির জন্যও এই আসন ভালো।

লেখক: যোগব্যায়াম প্রশিক্ষক

মন্তব্য করুন