যত্ন–আত্তি

এসির চাই যত্ন

এসি চালাতে হবে বিরতি দিয়ে, এতে যন্ত্রটি ভালো থাকবে।
এসি চালাতে হবে বিরতি দিয়ে, এতে যন্ত্রটি ভালো থাকবে। ছবি: অধুনা
বিজ্ঞাপন

এই বৃষ্টি তো এই গরম। এমনটাই চলছে এখন। তবে গুমোট গরমে এই সময়ে বেশ হাঁসফাঁস লাগে। গরমের কারণে অনেকেই শীতাতপনিয়ন্ত্রণ করার যন্ত্র (এসি) কেনেন। শুধু এসি কিনলেই তো হবে না। এসি কেনার আগে কী কী দেখে কিনবেন এবং ব্যবহারের সময় কীভাবে যত্ন নেবেন, সেটি জানতে হবে ভালোভাবে। তাহলেই এসি ব্যবহার করে গরমের দিনেও থাকতে পারবেন স্বস্তিতে।

এসির যত্ন

তুমুল বৃষ্টির দিনে বা শীতকালে অনেক সময় এসি বন্ধ থাকে। তাই নতুনভাবে এসি চালানোর আগে বাড়তি যত্ন নেওয়া উচিত। এসির যত্ন নিয়ে ইলেক্ট্রো মার্ট লিমিটেডর পরিচালক মো. নুরুল আফসার বলেন, এসির ব্যবহার বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এখন কারণে-অকারণে দুর্ঘটনার খবরও মিলছে। এর মূল কারণ মানহীন সহজলভ্য এসির ব্যবহার। এ ছাড়া যথাযথ সচেতনতা না থাকা ও রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। কম দামে নানা রকম মানহীন এসি কেনার ফলে দুর্ঘটনা ঘটছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরাও।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিশেষজ্ঞরা গবেষণা করে এসি সংশ্লিষ্ট দুর্ঘটনার যেসব কারণ চিহ্নিত করেছেন সে বিষয়ে জানালেন নুরুল আফসার। এসির পাওয়ার কেব্‌লে সঠিক স্পেক ব্যবহার না করা এবং দীর্ঘদিন সঠিক ও দক্ষ টেকনিশিয়ান দিয়ে এসি সার্ভিসিং না করার ফলে এসির কনডেনসারে ময়লা থাকলে কমপ্রেসরে উচ্চ তাপ ও চাপ তৈরি হয়ে এসি দুর্ঘটনা হয়। এসির ভেতরের পাইপের কোথাও ব্লকেজ থাকলে এবং সঠিকভাবে রেফ্রিজারেন্ট চার্জ না করলে এসির ভেতরে উচ্চ চাপ তৈরি হয়ে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

ঢাকার বনশ্রীর তালুকদার ইলেকট্রনিকসে ১০ বছর ধরে এসি মেরামতের কাজ করছেন মোবারক তালুকদার। এসির মেরামত বিষয়ে জানতে চাইলে মোবারক তালুকদার বলেন, ‘বছরের বেশ কয়েক মাস এসি বন্ধ থাকে বা প্রায় চালানোই হয় না। তাই নতুনভাবে আবার এসি চালানোর শুরুতে একবার পেশাদার টেকনিশিয়ানদের দিয়ে চেক করিয়ে নেওয়া ভালো।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এসি চালানোর আগে অবশ্যই বৈদ্যুতিক সংযোগ, সকেট, ফিল্টার—এসবের অবস্থাটা ঠিকমতো পরীক্ষা করতে হবে। এসির সংযোগ যেকোনো কারণে বিচ্ছিন্ন হয়ে যেতে পারে। তাই মাঝেমধ্যে এসির সংযোগ তার পরীক্ষা করে নেওয়া উচিত। এ ছাড়া অনেক এসি থেকে বিকট শব্দ হয়। একই সঙ্গে এসি থেকে আবার পানিও পড়ে। এ সমস্যা দেখা দিলে সঙ্গে সঙ্গে মেরামত করা উচিত।

এসি অনেক দিন বন্ধ থাকলে এসির ক্ষেত্রে প্রধান সমস্যা কুলিং বা ঠান্ডা করার ক্ষমতা কমে যাওয়া। এ ক্ষেত্রে এসির ভেতরের নেট খুলে ডাস্ট ক্লিনিং করে নিতে হবে। ব্যবহারকারী নিজেই সাধারণ উপায়ে এসির ইনডোর খুলে নেট ওয়াশ করে নিতে পারেন। এ ছাড়া কুলিং একেবারে বন্ধ হয়ে গেলে বুঝতে হবে এসির ভেতরে গ্যাস ফুরিয়ে গেছে। এ ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকসেবা প্রদানকারী প্রতিনিধিদের মাধ্যমে গ্যাস রিফিল করে নিতে পারেন। বিক্রয়োত্তর সেবা প্রদানের সময় পার হয়ে গেলে সার্ভিস চার্জ প্রদান করতে হবে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এসি থেকে অগ্নিকাণ্ড

বিভিন্ন কারণেই এসিতে আগুন লাগতে পারে। এসির আগুন থেকে তা সহজে ঘরে ছড়িয়ে যেতে পারে। তাই সতর্ক থাকুন। নিরাপত্তার এই টিপস মেনে চলতে হবে। ইলেকট্রিশিয়ান মোবারক তালুকদার জানান, সারা রাত–দিন এসি চালু রাখা উচিত নয়। দীর্ঘক্ষণ চালু থাকলে এসির যন্ত্রপাতি অতিরিক্ত গরম হয়ে আগুন ধরে যেতে পারে। কোনো সমস্যা দেখা দিলেই প্রফেশনাল টেকনিশিয়ান দ্বারা এসি পরীক্ষা করান। এ ছাড়া বছরে কম হলেও একবার টেকনিশিয়ানকে এসি দেখানো উচিত। এসির ফিল্টার নিয়মিত পরিষ্কার রাখতে হবে। খেয়াল রাখুন যেন এসির ভেতর কিছু জমাট বেঁধে না যায়।

দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেতে

ভালো মানের এবং সঠিক মান ও স্পেকের পাওয়ার কেব্‌ল ব্যবহার করা। দক্ষ টেকনিশিয়ান দিয়ে এসির কনডেনসার নিয়মিত পরিষ্কার রাখা। বাজার থেকে এসি কেনার সময় কমপ্রেসরে রেফ্রিজারেন্ট আর৪১০এ গ্যাস ব্যবহার করা হয়েছে কি না, নিশ্চিত হওয়া। হাই টেম্পারেচার ও হাই প্রেশার পরীক্ষা করা। এসির ভেতরের পাইপের কোথাও ব্লকেজ আছে কি না, তা নিয়ম মাফিক পরীক্ষা করা।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এসি কেনার আগে

বাজার ঘুরে দেখা গেল, বাসাবাড়ি বা অফিসে ব্যবহারের জন্য আলাদা এসি রয়েছে। ঢাকার হাজিপাড়ার মায়ের দোয়া স্টোরের বিক্রয় ব্যবস্থাপক মাসুদ আলম বলেন, ভালো ব্র্যান্ডের এসি দেখেশুনে কিনতে পারলে, সেটি প্রায় এক যুগের বেশি সময় টিকে যায়। ধুলাবালুমুক্ত পরিচ্ছন্ন স্থানে এসি বসানো উচিত। দক্ষ লোকের মাধ্যমে সঠিকভাবে এসি স্থাপন করতে হবে। ইনডোর ও আউটডোর ইউনিটের সামনে পর্যাপ্ত খালি জায়গা রাখতে হবে, যাতে করে প্রতিটি কোনায় বাতাস ছড়াতে পারে।

এসি কেনার আগে দেখেশুনে কিনতে হবে। কোথায় ব্যবহার করবেন, সে অনুযায়ী এসি কেনা উচিত। আগে থেকে ধারণা রাখতে হবে দরদামের ওপরও। ঘরের আয়তন বুঝে এসি কেনাই ভালো। যাঁদের প্রযুক্তি সম্পর্কে ভালো ধারণা রয়েছে, তাঁরা স্মার্ট এসি কিনতে পারেন। এই এসিগুলো স্মার্টফোন থেকেই নিয়ন্ত্রণ করা যায়। এসি কেনার আগে নিজের ঘরের আয়তন সম্পর্কে ভালো করে ধারণা নিন। নিজের ঘরের আয়তন অনুযায়ী এসি যদি কেনেন, তাহলে ঘর ভালোভাবে ঠান্ডা হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন