বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নিজের ক্যারিয়ারে ২০১৮ সালের মার্চে নেপালের কাঠমান্ডু বিমানবন্দরে ইউএস–বাংলার বিমান দুর্ঘটনাকে সবচেয়ে দুঃখজনক ও চ্যালেঞ্জিং ঘটনা মনে করেন মাশফি বিনতে শামস। তখন তিনি সেখানে রাষ্ট্রদূতের দায়িত্বে। নেপালে কোনো বিমানবন্দরের সেটিই সবচেয়ে বড় দুর্ঘটনা ছিল। নানা চাপ আর চ্যালেঞ্জ সামলে দুর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তিদের মরদেহ দেশে ফেরত পাঠানো আর আহত ব্যক্তিদের চিকিৎসাসহ পুরো বিষয়টি সামাল দেওয়া দুরূহ ছিল।

কূটনীতিক হিসেবে স্মরণীয় ঘটনা হিসেবে তিনি এ বছরের মার্চে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ভারতসহ দক্ষিণ এশিয়ার পাঁচটি দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানদের সফরের সঙ্গে থাকাটাকে বিবেচনায় রাখছেন। একসঙ্গে এতগুলো সফরের আয়োজন এবং একটির জন্য অন্যটিকে কোনোভাবে কম গুরুত্ব না দিয়ে কাজ করার ঘটনা খুব কম সময়ে ঘটে থাকে। মার্চের ১০ দিনে ওই পাঁচ দেশের সঙ্গে যা ঘটেছে, তা সম্পর্ককে অনেক দূর এগিয়ে নেবে বলে মনে করেন মাশফি বিনতে শামস।

নারীমঞ্চ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন