বিজ্ঞাপন

দেশে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং বিদেশের বিভিন্ন মিশনে বিভিন্ন পদে কাজ করার পর নাহিদা সোবহান জর্ডানে প্রথমবারের মতো রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পেয়েছেন। মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিতে তিনিই বাংলাদেশের প্রথম নারী রাষ্ট্রদূত। তাঁর মতে, মধ্যপ্রাচ্যের যেকোনো দেশে নারী রাষ্ট্রদূত হওয়া একটি চ্যালেঞ্জ। তবে জর্ডানে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ পাওয়ায় তিনি নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করেন। কারণ, জর্ডান মধ্যপ্রাচ্যের একটি উন্নয়নশীল দেশ হলেও বাংলাদেশের মতোই প্রগতিশীল এবং নারীর ক্ষমতায়নে বদ্ধপরিকর। তাই দেশটিতে নারী রাষ্ট্রদূত হিসেবে কাজ করার প্রচুর সুযোগ রয়েছে।

নাহিদা সোবহান বলেন, ‘পেশাদারত্বের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের নারীরা কোনোভাবেই পিছিয়ে নেই। তার একটা বড় প্রমাণ জর্ডানে প্রায় ৭০ হাজার নারী পেশাদারত্বের সঙ্গে দক্ষ কর্মী হিসেবে কাজ করছেন। একইভাবে গত বছর করোনা সংক্রমণের প্রাথমিক পর্যায়ে জর্ডানে কঠোর বিধিনিষেধ কিংবা সান্ধ্য আইন চলার সময়ে আমি সরাসরি নিজে গিয়ে বাংলাদেশের দুস্থ নারী অভিবাসীদের খাবারসহ প্রয়োজনীয় সহায়তা দিয়েছি। এ ক্ষেত্রে শুধু নারী হিসেবে নয়, বাংলাদেশের একজন পেশাদার কূটনীতিক হিসেবে বাংলাদেশি অভিবাসী নারীদের পাশে দাঁড়ানোটা আমার জন্য গর্বের।’

নারীমঞ্চ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন