default-image

শুকুরজানের বয়স আনুমানিক ৯০ বছর। তাঁর ছয় মেয়ে ও তিন ছেলে। ছেলে–মেয়েদের মধ্যে দুই মেয়ে ও এক ছেলে মারা গেছেন। শুকুরজানের স্বামী ময়েজউদ্দিনও মারা গেছেন ১৪ বছর আগে। পাঁচ প্রজন্ম দেখে যাওয়ার সুযোগ পাওয়াদের মধ্যে তিনি একজন।

শুকুরজানের স্বামীর বাড়ি টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার বৈলারপুর গ্রামে। তাঁর বড় মেয়ে জাহানারা আক্তার (৬৫)। জাহানারার বড় মেয়ে শাহীনা আক্তার (৪২)। শুকুরজানের নাতনি শাহীনার বড় মেয়ে আফসানা তাহমিন (২০), তিনি শুকুরজানের প্রপৌত্রী। আফসানা তাহমিনার এক মাস বয়সী মেয়ের নাম আফিয়া নাওয়ার। সে শুকুরজানের প্রপৌত্রীর ঘরের সন্তান।

বিজ্ঞাপন

শুকুরজান বলেন, ‘আল্লায় যুদি আমারে আরু ১৯ বছর বাঁচাইয়া রাহে, তাইলে আমি আফিয়ার বাচ্চারেও দেইখ্যা যাইতে পারমু।’

শুকুরজানের ছোট ছেলে সেলিম কবির সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি বিভাগে উপসহকারী কমিউনিটি চিকিৎসা কর্মকর্তা পদে চাকরি করছেন। তিনি বলেন, ‘আমার মা এখনো একা একাই চলাফেরা করতে পারেন। আল্লাহ সহায় হলে মা আরেকটি প্রজন্ম দেখে যেতে পারবেন।’

মন্তব্য পড়ুন 0