বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
তিনি এক অধ্যায় পড়ালেন, বাড়ির কাজ দিলেন। কিন্তু তারপরও দেখি বেশ খানিকটা সময় আছে। আমরা আপাকে অনুরোধ করলাম একটা গান গাওয়ার জন্য। আপা গান শুরু করলেন—‘পুরানো সেই দিনের কথা’। গান শেষ হলো ঘণ্টাও বাজল।

বন্ধুদের সঙ্গে দেখা–সাক্ষাতের পর্বটা শেষ হতেই মনে হলো, অনেক দিন পর আমরা আমাদের আরেক বাড়িতে এসেছি। স্কুলের ভেতরে দেখি তিনজন স্বেচ্ছাসেবক আপু আমাদের হাতে স্যানিটাইজার দিচ্ছেন। সারি বেঁধে দাঁড়ালাম। একসময় আমার পালা এল। ভালোভাবে হাত পরিষ্কার করে তিন ফুট দূরত্ব বজায় রেখে ক্লাসে গেলাম।

ক্লাসে গিয়ে দেখি, এক সেকশনকে দুই ভাগ করে দুটি ক্লাসে বসানো হয়েছে। বেশ খানিকটা দূরত্ব রেখে প্রিয় বন্ধু সাহারের পাশে গিয়ে বসলাম। কিছুক্ষণের মধ্যে শ্রেণিশিক্ষক এলেন। কথাবার্তা বললেন। শেষে নাম ডেকে চলে গেলেন পরের ক্লাসে। তার পরপরই এলেন আরেক শিক্ষক। তিনি এক অধ্যায় পড়ালেন, বাড়ির কাজ দিলেন। কিন্তু তারপরও দেখি বেশ খানিকটা সময় আছে। আমরা আপাকে অনুরোধ করলাম একটা গান গাওয়ার জন্য। আপা গান শুরু করলেন—‘পুরানো সেই দিনের কথা’। গান শেষ হলো ঘণ্টাও বাজল।

পরের বিষয়ের শিক্ষক এলেন। তিনিও পড়িয়ে বাড়ির কাজ দিয়ে চলে গেলেন। ছুটি হওয়ার পর দূরত্ব বজায় রেখে সিঁড়ি বেয়ে নিচে নেমে এলাম। তারপর আবার আপুরা স্যানিটাইজ করিয়ে আম্মুর কাছে পাঠালেন। আম্মুর সঙ্গে কথা বলতে বলতে বাসায় চলে এলাম। এককথায় দারুণ একটা দিন কাটল আমার!

রওজাতুজ্জামান মৌলি: শিক্ষার্থী, পঞ্চম শ্রেণি, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ধানমন্ডি, ঢাকা

গোল্লাছুট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন