বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অদ্ভুত রহস্যের প্রতিশব্দ যেন পর্বত। বিশাল শরীর নিয়ে রাজসিক ভঙ্গিতে দাঁড়িয়ে থাকে। তার অনমনীয় উচ্চতা যেন অপার আকাশকেও চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেয়। অথচ নিজে কী ভীষণ শান্ত, স্থির। পর্বতের পাদদেশে দাঁড়িয়ে নিজেদের বড্ড ক্ষুদ্র মনে হয়। আর যাঁরা জয় করেন আকাশসম এই পর্বতচূড়া, তাঁদের অনুভূতিটা ঠিক কেমন হয়! নিশ্চয় কোনো পর্বতারোহীর কাছে তা জেনে নেওয়া যাবে।

পরিবেশ নিয়ে সারা বিশ্বই এখন বেশ সোচ্চার। আর পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় পাহাড়-পর্বত প্রকৃতির অপরিহার্য উপাদান। পৃথিবীর প্রায় ১০ ভাগের ১ ভাগ মানুষ বাস করে পার্বত্য অঞ্চলে। পৃথিবীর প্রয়োজনীয় মিঠাপানির প্রায় অর্ধেক সরবরাহ করে পর্বতমালা। উদ্ভিদ ও প্রাণিজগতের অভয়ারণ্য হিসেবে পর্বতের কথা আর আলাদা করে নাই–বা বললাম।

আজ ১১ ডিসেম্বর, আন্তর্জাতিক পর্বত দিবস। পার্বত্য অঞ্চলের মানুষের জীবনমান উন্নয়ন ও টেকসই ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে জাতিসংঘ ২০০৩ সালে দিবসটি ঘোষণা করে। পর্বত দিবসের এ বছরের প্রতিপাদ্য—সাসটেইনেবল মাউন্টেন ট্যুরিজম বা টেকসই পর্বত পর্যটন।

ডেজ অব দ্য ইয়ার অবলম্বনে

প্র ছুটির দিনে থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন