বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আয়রনম্যান ৭০.৩ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ ২০২১ অনুষ্ঠিত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট জর্জ শহরে। প্রতিযোগিতায় প্রায় দুই কিলোমিটার সাঁতার, ৯০ কিলোমিটার সাইক্লিং, প্রায় ৩ হাজার ৫০০ ফুট উচ্চতার পাহাড়ে আরোহণ করতে হয় এবং ২১ কিলোমিটার দূরত্বে প্রায় ১ হাজার ১০০ ফুট আরোহণ করতে হয়। এ কঠিন চ্যালেঞ্জ সম্পন্ন করার জন্য ৮ ঘণ্টা ৩০ মিনিট নির্ধারিত সময় ছিল।

প্রতিযোগিতায় নিজের বয়স ক্যাটাগরিতে আরাফাত ২৮৮ জন প্রতিযোগীর মধ্যে ১৫৩তম স্থান অর্জন করেছেন। তাঁর মোট সময় লেগেছে ৫ ঘণ্টা ১৫ মিনিট ৪৩ সেকেন্ড। এবারের প্রতিযোগিতায় মোট প্রতিযোগী ছিল ৮০টি দেশ থেকে ৩ হাজার ৫৫৫ জন।

সুস্থ বাংলাদেশের স্বপ্ন নিয়ে মুহাম্মদ সামছুজ্জামান আরাফাত টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া দৌড়ে একটি অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। আয়রনম্যান অভিযানের লক্ষ্যে তিনি প্রায় সাত বছর কঠিন অনুশীলন করে চলেছেন। ইতিমধ্যে আরাফাত ২০১৭ সালে মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত আয়রনম্যান মালয়েশিয়া ২০১৭, আয়রনম্যান ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ ২০১৯, আয়রনম্যান মালয়েশিয়া ২০১৯ এবং আয়রনম্যান ৭০.৩ বাংসায়েন, থাইল্যান্ড ইভেন্টসমূহে ব্যক্তিগত সেরা টাইমিং নিয়ে সফলভাবে অংশগ্রহণ করেছেন। এ ছাড়া আরাফাত সাতবার সাঁতরে বাংলা চ্যানেল অতিক্রম করেন, অংশ নিয়েছেন দেশ-বিদেশে বিভিন্ন ম্যারাথনে।

আয়রনম্যান ৭০.৩ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে মূলত বছরব্যাপী আয়োজিত আয়রনম্যান ইভেন্টসমূহে অংশগ্রহণকারী অ্যাথলেটদের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে চূড়ান্ত প্রতিযোগীরা নির্বাচিত হন। আরাফাতের লক্ষ্য ছিল সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার মধ্যে চ্যালেঞ্জগুলো অতিক্রম করা, যা দারুণভাবে অর্জিত হয়েছে।

আয়রনম্যান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে আরাফাতের অংশগ্রহণে পৃষ্ঠপোষকতা করেছে মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ (এমজিআই), আকাশ ডিটিএইচ, হোন্ডা বাংলাদেশ-ডিএইচএস মটরস এবং বাংলাদেশ ফাইন্যান্স লিমিটেড।

প্র ছুটির দিনে থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন