বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

প্রথম আলোর উল্লেখযোগ্য প্রতিবেদন, ম্যাগাজিন, ঈদসংখ্যা, বিভিন্ন ক্রোড়পত্র জায়গা পেয়েছে তাঁর ব্যক্তিগত সংগ্রহশালায়। প্রতিবেদন কেটে তিনি বইও বানিয়েছেন। তাকে তাকে সাজিয়েছেন পরম মমতায়। তবে প্রথম আলোর ক্রোড়পত্র ‘ছুটির দিনে’ নিয়েই তাঁর বেশ আগ্রহ।

কেন প্রথম আলোর সংগ্রহশালা তৈরি করেছেন, এ প্রশ্নের বেশ কিছু উত্তর মো. জামশেদ আহমেদের কাছে রয়েছে। যার একটি প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমানের প্রতি ব্যক্তিগত ভালো লাগা।

দিনের শুরুতে প্রথম আলো, শেষেও

চলতি বছরে অবসরে গেছেন মো. জামশেদ আহমেদ। ব্যাংকের চাকরির সুবাদে তিনি সকালবেলায় ঘুম থেকে উঠতেন। অফিসে যেতেন পুরো পত্রিকায় চোখ বুলিয়ে। এরপর ফিরে এসে রাতে পত্রিকার সম্পাদকীয়, উপসম্পাদকীয় কিংবা বাণিজ্যের নানা সংবাদ খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে পড়ে শেষ করেন। আর পছন্দের প্রতিবেদনটি তিনি জমা করেন সংগ্রহশালায়। সে অভ্যাস এখনো আছে তাঁর। তিনি জানালেন, ১৯৯৮ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত ছুটির দিনের ৩৩২টি সংখ্যা তাঁর কাছে রয়েছে। রস+আলো আছে ১২৪টি। জায়গার অভাবে সব পত্রিকা, ম্যাগাজিন তিনি জমা করতে পারেননি। কিছু পত্রিকা নষ্টও হয়ে গেছে। এ জন্য আফসোসের যেন শেষ নেই তাঁর।

প্র ছুটির দিনে থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন