বিজ্ঞাপন

ক্যানসারের ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে হলে সাধারণত প্রাথমিক পর্যায়ে শনাক্ত হওয়া ক্যানসার রোগীর থেকে বেশি উপকৃত হন। প্রাথমিক পর্যায় হলে ক্যানসারের কোনো জীবাণু ছড়ানোর আশঙ্কাও কম থাকে এ ধরনের অস্ত্রোপচারের জন্য।

কিন্তু এর কিছু অসুবিধাও আছে। বিশেষ করে অ্যাডভান্স স্টেজের ক্যানসার বা জটিল অপারেশন করা এর দ্বারা মুশকিল। ক্ষেত্রবিশেষে না করাই ভালো। এ ধরনের অস্ত্রোপচারের জন্য উন্নত মানের যন্ত্রপাতি থাকা যেমন জরুরি, তেমনি দরকার দক্ষ-অভিজ্ঞ শল্যবিদ ও তাঁর দল। এতে আধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহৃত হয় বলে এর খরচ পেট কেটে অস্ত্রোপচারের তুলনায় বেশি।

আজকাল দেশে ল্যাপারোস্কপি প্রায় সব এলাকাতেই হচ্ছে। কিন্তু মনে রাখা জরুরি, সব ধরনের চিকিৎসা সবার জন্য প্রযোজ্য হবে না। শুধু খরচের জন্য নয়, সব উন্নত প্রযুক্তিরই কিছু সীমাবদ্ধতা থাকে, সব ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হয় না। কাজেই কোনো একটা অস্ত্রোপচার কোন পদ্ধতিতে ভালো হবে, সে বিষয়ে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

বিশেষত ক্যানসার চিকিৎসায় এটাও মনে রাখা জরুরি, শুধু কম দাগ বা কম কাটাছেঁড়ার চেয়ে সম্পূর্ণভাবে ক্যানসারের টিস্যু সফলভাবে অপসারণ করা বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তা ছাড়া ক্যানসার নির্মূল করতে অস্ত্রোপচারের পর আরও থেরাপি, পরীক্ষা–নিরীক্ষা, চেকআপ দরকার হয়। তাই ব্যয়ের কথা মনে রাখতে হবে। বর্তমানে বেশির ভাগ ক্যানসারই প্রাথমিকভাবে মিনিমাল অ্যাকসেস সার্জারি করে অপারেশনযোগ্য এবং অনেক ক্যানসারই প্রায় নিরাময়যোগ্য। তাই কোন পদ্ধতি বেছে নেবেন, সে ব্যাপারে আপনার চিকিৎসকের সঙ্গে আলোচনা এবং পরামর্শ করুন।

প্র ছুটির দিনে থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন