default-image

প্রশান্ত মহাসাগরের অন্তর্গত গ্রেট ব্যারিয়ার রিফ বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রবালপ্রাচীর, যা প্রায় ৯০০টি ছোট-বড় দ্বীপ এবং প্রায় ৩ হাজার প্রবালপ্রাচীর নিয়ে গঠিত।

বিজ্ঞাপন

default-image

গ্রেট ব্যারিয়ার রিফের অবস্থান অস্ট্রেলিয়ার কুইনসল্যান্ডের উপকূলের অদূরে। বিশেষজ্ঞদের মতে, এটি ১৮ মিলিয়ন বছর আগে সৃষ্টি হয়েছে।

default-image

গ্রেট ব্যারিয়ার রিফ বিশ্বের সবচেয়ে বড় একক কাঠামো, যার মধ্যে প্রাণিসত্তা আছে। এটি মহাশূন্য থেকেও পরিষ্কার দেখা যায়।

বিজ্ঞাপন

default-image

রিফটির মধ্যে ব্যাপক প্রাণবৈচিত্র্য লক্ষ করা যায়। গবেষণায় দেখা গেছে, এখানে প্রায় ৪০০ প্রজাতির প্রবাল ছাড়াও ৩০ প্রজাতির তিমি, ২১৫ প্রজাতির পাখি, ছয় প্রজাতির সামুদ্রিক কচ্ছপ, ১২৫ প্রজাতির হাঙর ও স্টিংরে, ১৭ প্রজাতির সামুদ্রিক সাপ এবং প্রায় এক হাজার ৫০০ প্রজাতির মাছ বাস করে।

default-image

১৯৮১ সালে ইউনেসকো এটিকে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট বা বিশ্ব ঐতিহ্য স্থান হিসেবে ঘোষণা করে।

default-image

গ্রেট ব্যারিয়ার রিফের দেখভাল ও রক্ষণাবেক্ষণে সহায়তা করে গ্রেট ব্যারিয়ার রিফ মেরিন পার্ক। রিফের ভেতরে মাছ ধরা কিংবা প্রাকৃতিক পরিবেশের ক্ষতি করা কঠোরভাবে নিষিদ্ধ।

বিজ্ঞাপন

default-image

গ্রেট ব্যারিয়ার রিফের প্রতি বছর ৫০ লাখ পর্যটক ভ্রমণ করেন। অস্ট্রেলিয়ার পর্যটনশিল্পে এই রিফের অবদানই সবচেয়ে বেশি।

প্র ছুটির দিনে থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন