বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

রাজধানীর নারিন্দার বাসিন্দা বেসরকারি চাকরিজীবী রুমা খন্দকার নিয়মিত ওয়ারীর ইউনিমার্ট থেকে কেনাকাটা করেন। ‘ঝামেলাহীন বাজার করা যায়, এ কারণেই আমার পছন্দ ইউনিমার্ট।’ বললেন রুমা।

৯ অক্টোবর ইউনিমার্টে গিয়ে দেখা গেল, স্কুলপড়ুয়া মেয়ে অনিকা রেহমানকে নিয়ে এসেছেন গৃহিণী জান্নাতুল ইমি। প্রশ্ন করি, কেন ইউনিমার্টে কেনাকাটা করতে এসেছেন। মায়ের আগেই মেয়ের উত্তর, ‘এখানে আমার পছন্দের সবকিছু পাওয়া যায়।’

দাদা আফজালুল কবির নাতিকে নিয়ে খেতে এসেছেন ইউনিমার্টে খাবারের দোকান ইনডালজে। খাবারের মান যেমন ভালো, তেমনি পুষ্টিগুণসম্পন্ন বলে জানালেন আফজালুল কবির। প্রতি গ্রাম দশমিক ৮৫ পয়সা করে খেতে পারবেন আপনার পছন্দের সালাদ। রয়েছে নিজস্ব বেকারির বিভিন্ন পদ। খেতে পারেন মিষ্টান্ন বা কফি।

default-image

ইউনিমার্ট কোনো পণ্যের মানের ক্ষেত্রে সামান্যতম ছাড় দেয় না। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইউনিমার্ট মানের ক্ষেত্রে কোনো ছাড় দেয় না। সেটি যেকোনো পণ্যই হোক না কেন। সবজি থেকে শুরু করে মাছ, মাংস—সবকিছু নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ইউনিমার্ট সংগ্রহ করে। মুরগি ও গরু সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে নেওয়া হয়। অন্য সব পণ্যের ক্ষেত্রে বিএসটিআইয়ের মান যথাযথভাবে যাচাই-বাছাই করা হয়। আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের সব পণ্যের মানও কোয়ালিটি কন্ট্রোল ডিপার্টমেন্ট (কিউসি) দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করা হয়।

ইউনিমার্ট থেকে দেশি পণ্যের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের পণ্য ক্রেতারা সুপারশপ থেকে কিনতে পারবেন। প্রতিষ্ঠানটি পণ্য আন্তর্জাতিক বাজারে আসার সঙ্গে সঙ্গেই বাংলাদেশের বাজারেও নিয়ে আসে। কিছু পণ্যের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ এক মাস সময় লাগে।

default-image

৪৫টির বেশি গাড়ি রাখার সুবিধাও রয়েছে এই ইউনিমার্টে। নিজস্ব বেকারি থেকে প্রতিদিন তাজা পণ্য আনা হয়। ইউনিমার্টে নদী, হাওর ও সমুদ্রের মাছ পাওয়া যায়। রয়েছে হাতে বানানো বোরহানি, দই। ইউনিমার্টে দেশি পণ্যের পাশাপাশি একই পণ্যের ভালো মানের বিদেশি পণ্যেরও বিশাল সম্ভার রয়েছে।

ওয়ারীর ইউনিমার্টে রয়েছে আদিকালের গ্রামোফোন। রয়েছে পাটের তৈরি উপকরণ। বরফজাত খাবার, শুকনা খাবার, বিস্কুট, কেক, পাস্তা, বাদাম, চকলেট, ফল, মসলাসহ চাল, ডাল, মাছেও আছে দেশ–বিদেশের স্বাদ। মাচার লাউ, শাক, আঙিনার বেগুন, টমেটো, ক্ষীরায় খুঁজে পাবেন দেশি স্বাদ।

বই, পোশাকের পাশাপাশি নবজাত শিশুর নানা উপকরণ, খেলাধুলা ও ব্যায়াম করার পোশাক ও উপকরণ পাওয়া যাবে। আছে ল্যাম্পশেড, ফটোফ্রেম, শিশুদের জন্য টেবিল ল্যাম্প।

default-image

হোম ডেলিভারি

ইউনিমার্ট অনলাইন (www.unimart.online) থেকে চাহিদামতো পণ্যের ফরমাশ করা যায়। ঢাকা শহরের বিভিন্ন স্থানে বাড়িতে পণ্য পৌঁছে দেয় ইউনিমার্ট। স্টোর পিকআপ ভ্যান সুবিধার পাশাপাশি আবার অর্ডার শিডিউলিংয়ের সুবিধাও রয়েছে। ভোক্তাদের সুবিধা নিশ্চিতে একাধিক পেমেন্ট পদ্ধতি ক্যাশ অন ডেলিভারি, ডেবিট, ক্রেডিট কার্ড পেমেন্ট, মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে টাকা পরিশোধ করার সুযোগ রয়েছে। ওয়ারীর বাসিন্দারা ০১৮৪৭৪১৩৭৫৫ নম্বরে ফোন করে প্রয়োজনীয় পণ্য অর্ডার দিতে পারবেন। যদি সকাল ৯টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ফোন করে অর্ডার দেন, তাহলে চার ঘণ্টার মধ্যে বাসায় পণ্য পৌঁছে দেওয়া হবে। এই সময়ের পরে অর্ডার দিলে পরের দিন ডেলিভারি দেওয়া হবে।

প্রতিদিন খোলা

সপ্তাহের প্রতিদিনই ওয়ারীর ইউনিমার্ট খোলা থাকে। এ সাত দিন সকাল ৯টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত সুপারশপে ক্রেতা-দর্শনার্থীরা আসতে পারবেন। এ সময় ক্রেতা তাঁদের পছন্দসই পণ্য দেখতে ও কিনতে পারবেন। প্রতিদিন সন্ধ্যার পর ওয়ারী ইউনিমার্টে যেতে মতিঝিল থেকে ৬ মিনিট, আরামবাগ থেকে ৭ মিনিট, শান্তিনগর থেকে ৯ মিনিট এবং বেইলি রোড থেকে ১১ মিনিট সময় লাগবে।

মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন