বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রাজধানীর ধানমন্ডির মাইডাস সেন্টারে কাল শুক্রবার শুরু হচ্ছে দুই দিনের এ প্রদর্শনী ‘আড্ডা চলে’। মাইডাসের বিশাল হলে ৮টি দোকানে থাকবে ১০ উদ্যোক্তার পণ্য। শুক্র ও শনিবার বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে এ প্রদর্শনী। কেউ মাস্ক আনতে ভুলে গেলে বিনা মূল্যে মাস্ক সরবরাহ করা হবে।

default-image

এখানে তাঁত, ব্লক, স্ক্রিন প্রিন্ট থেকে শুরু করে শিল্পীর হাতে আঁকা বিশেষ বিশেষ শাড়ি মিলবে। থাকবে সালোয়ার–কামিজ, পশ্চিমা পোশাক, গয়না, যুক্তরাজ্য থেকে আমদানি করা প্রসাধনসামগ্রী, বিভিন্ন ধরনের বই, খাবার ও গাছ।

যাদের পণ্য মিলবে

অরনীর: নানা রকম গাছপালা নিয়ে উপস্থিত থাকবে অরনীর। থাকবে পটে তৈরি গাছ, ছায়ার গাছ, অফিসের টেবিলে সাজিয়ে রাখার মতো ছোট ছোট গাছ, বড় ও মাঝারি আকারের গাছ। বিক্রয়োত্তর সেবা হিসেবে এখান থেকে গাছ কেনার পর ১৫ দিন পর্যন্ত গাছের রিপ্লেসমেন্ট সার্ভিস পাবেন পাবেন ক্রেতারা। সব ধরনের গাছে থাকবে ছাড়। বিনা মূল্যে হোম ডেলিভারিও পাওয়া যাবে।

default-image

ডোরেমি: যুক্তরাজ্য থেকে আমদানি করা বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ডের প্রসাধনী পাওয়া যাবে। এ প্রদর্শনীতে তিনটি ভাগে পণ্য রাখবে ডোরেমি। থাকবে ত্বক ও চুলের নানা পণ্য, শিশুদের প্রয়োজনীয় সামগ্রী লোশন, হেড টু টো ওয়াশ, ন্যাপি ব্যাগ, ওয়াইপস, শ্যাম্পু। এ ছাড়া পাওয়া যাবে বিভিন্ন স্বাস্থ্যকর খাবার ও পানীয়।

default-image

ঈহা: ঈহা অর্থ ইচ্ছা। ঈহার বিশেষ শাড়ি রংতুলিতে আঁকা থাকে। প্রদর্শনীতে তারা সেই শাড়ির পাশাপাশি স্ক্রিন, ব্লক ও বুননের নকশা করা পোশাক বিক্রি করবে। মেলায় থাকবে ঈহার সাবব্র্যান্ড নৈ, যেখানে তৈরি পোশাক ও নিজস্ব নকশার ব্যাগ থাকবে।

default-image

টের বিবি: ‘আড্ডা চলে’ প্রদর্শনী উপলক্ষে তৈরি কাপড় নিয়ে কিছু নিরীক্ষা করছে পটের বিবি। বিশেষ কিছু হ্যান্ডলুমের শাড়িও ক্রেতাদের সামনে তুলে ধরতে চায় তারা। এর বাইরে নিয়মিত শাড়ি, পাঞ্জাবি, টু পিস, রেডি ব্লাউজ ও ব্লাউজপিস থাকবে।

রংধনু ক্রিয়েশন: মসলিনের ওপর হাতে আঁকা শাড়ি পেতে চাইলে দেখে আসতে পারেন রংধনু ক্রিয়েশনের স্টল। হাতে আঁকা শাড়ি, টু পিস, শাল, ক্যানভাস, কুশন কভার, ল্যাম্পশেড, আঁকা কাচের বোতল, এমব্রয়ডারি ও হাতে তৈরি নানান গয়না থাকবে এ স্টলে। ক্রেতারা এখানে রংধনু ক্রিয়েশনের পণ্যের ওপর পাবেন বিশেষ ছাড়।

গ্লুড টুগেদার: পোশাক কেনার পর মিলিয়ে গয়না কিনতে চাইলে, তা–ও মিলবে। গ্লুড টুগেদারে থাকবে বৈচিত্রপূর্ণ গয়নার সম্ভার।

default-image

বুকস অব বেঙ্গল: অন্য সব মেলার চেয়ে ‘আড্ডা চলে’কে অনন্য করেছে বুক অব বেঙ্গলের উপস্থিতি। মনের খোরাক মেটাতে থাকবে বইয়ের বিশাল ভান্ডার। সেখান থেকে নিজের পছন্দের বই বেছে নেওয়া অপেক্ষামাত্র।

default-image

পিঠা পার্বণ ও চিয়ারি শেফ: আড্ডা চলবে আর খাবারদাবার থাকবে না, তা তো হয় না। তাই খাবারের সমাহার নিয়ে থাকবে চিয়ারি শেফ ও পিঠা পার্বণ। টক, ঝাল, মিষ্টি থেকে শুরু করে দেশি-বিদেশি—সব ধরনের খাবারই পাওয়া যাবে খাবারের স্টলে।

আয়োজকদের একজন পটের বিবির উদ্যোক্তা ফোয়ারা ফেরদৌস বলেন, ‘শুধু কেনাকাটা করতেই নয়, প্রদর্শনী দেখতেও যেন ক্রেতা-শুভানুধ্যায়ীরা আসেন আমাদের আড্ডায়। কারণ, যাঁদের সঙ্গে এত দিন অনলাইনে কথা হয়েছে, তাঁদের সঙ্গে সামনাসামনি আলাপও হয়ে যাবে। এ আয়োজন মূলত সেই কারণেই।’

নকশা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন