বিজ্ঞাপন

চলতি ধারার সাজের পূর্বশর্ত কেবল পোশাক নয়, চুলের স্টাইলও বেশ কড়া ভূমিকা রাখে। সময় আর ফ্যাশনের সঙ্গে বদলে যায় চুল ছাঁটার ধরনও। কিন্তু কেমন হবে চুলের ছাঁট, এটা নির্ভর করে মুখের আকৃতি, গড়ন আর চুলের ধরনের ওপর। এখানে বয়স অবশ্য একটা অনুঘটক। তবে খেয়াল রাখা উচিত সামাজিক অবস্থান, কর্মক্ষেত্রের ধরন, উপলক্ষ বা উৎসব, আবহাওয়া ও চলতি ধারা।

বেশ কয়েক বছর ধরে চুলের কাটের ক্ষেত্রে অনুসরণ করা হচ্ছে তারকা ফুটবল খেলোয়াড়দের। এ তালিকায় লিওনেল মেসি ও ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্দোর নামই সবার ওপরে। এ ছাড়া নেইমার, পগবা, ড্যাম্বেলে, এমবাপ্পের নামও আছে তালিকায়। ফ্যাশন বিশেষজ্ঞদের মতে, এ ধারা জনপ্রিয়তা পায় ডেভিড বেকহামের অনুসারীদের মাধ্যমে। তবে বিভিন্ন সময়ে বদলেছে চুল কাটার ধরন। সময়ের সঙ্গে যোগ হয়েছে নতুন ধরন। এখানেও সৃজনশীলতা পেয়েছে প্রাধান্য। আবার অনেক কাট থেকে গেছে স্বমহিমায়।

default-image

আবার অনেকেই চান নিজের ব্যক্তিত্বের সঙ্গে মানানসই চুলের কাট—এমনই জানালেন পারসোনা অ্যাডামসের শাখা ব্যবস্থাপক মাসুম বিল্লাহ্ খান। তিনি বললেন, ‘এ ধরনের ছাঁটকে আমরা বেসিক বা ন্যাচারাল হেয়ার কাট বলে থাকি। এ ছাড়া তরুণেরা স্পাইক, ফেড, বাজ কাট বেশি পছন্দ করছেন।’

এবার জেনে নেওয়া যাক এ সময়ের শীর্ষে থাকা চুলের কিছু ছাঁটের কথা। এ তালিকায় আছে ক্রু কাট, আন্ডার কাট, ডিসকানেকটেড আন্ডার কাট, লো ফেড, মিড ফেড, হাই ফেড, সাইড পার্ট, বাজ কাট, ফ্রেঞ্চ ক্রপ, পোম্পাডোর ইত্যাদি।

হাই ফেড কাট

default-image

কোনো এক অজানা কারণে বিশ্বজুড়ে এখন ছোট চুলের জনপ্রিয়তা। হাই ফেড কাট হলো সেই ছোট চুলের একটি স্টাইল। সময়টা যেহেতু গরমের, তাই ছোট চুলের কাটে স্বস্তিও পাওয়া যাবে। এমনকি ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্দোর সর্বশেষ ফ্যাশন ফটোশুটে দেখা গেছে হাই ফেড কাট হেয়ার স্টাইল। এভাবে চুল কাটতে হলে ওপর থেকে ক্লিপার দিয়ে ক্রমে কান পর্যন্ত ছোট করে কেটে ফেলতে হবে।

মিড ফেড কাট

লো ফেড কাটের চেয়ে একটু বড় চুলই হলো মিড ফেড কাট। আর্জেন্টাইন ফুটবল তারকা লিওনেল মেসিকে এ কাটেই বেশি দেখা যায়। এ কাটে ক্লিপার দিয়ে কিছুটা কম করে চুল কেটে নিতে হবে।

লো ফেড কাট

ফেড কাটের শুরুই লো ফেড কাট দিয়ে। বলা হয়, ব্রিটিশদের কাছে সবচেয়ে জনপ্রিয় চুলের কাট এটি। বড় চুলের ডেভিড বেকহাম যখন চুল ছোট করে মাঠে ফিরলেন, তখন তাঁকে দেখা গেল লো ফেড কাটে। এমনকি জেমস বন্ড সিরিজের পরবর্তী সিনেমায় ড্যানিয়েল ক্রেগকেও দেখা যাবে এই হেয়ার স্টাইলে।

আন্ডার কাট

নামের মতোই এ কাট। মাথার পাশের ও পেছনের চুল একেবারে ছোট করে কেটে, মাথার ওপরের চুল তুলনামূলকভাবে বড় রাখতে হবে। তবে চেহারার ধরন বুঝে এ চুলে বিভিন্ন স্টাইল করা যায়। কম্ব ওভার স্টাইলও অনেকের কাছে জনপ্রিয়। তবে এভাবে চুল কাটলে ব্যাক ব্রাশ করে রাখতে হবে। আর যাঁরা বেশি ক্যাজুয়াল থাকতে পছন্দ করেন, তাঁরা চুল এলোমেলো করেও রাখতে পারেন।

পোম্পাডোর

মাথার সামনের দিক থেকে চুল ধীরে ধীরে ছোট হয়ে পেছনে নেমে যাবে। এতে সামনে বড় ও পেছনে চুল ছোট থাকবে। এ কাটকেই বলে পোম্পাডোর হেয়ার কাট।

করোনা মহামারির এ সময় বাইরে যেতে মানতে হয় নানা বিধিনিষেধ। সেলুনে গিয়ে চুল কাটায় অনেকেরই আগ্রহ কম এখন। তাই বাড়িতেই কাটতে পারেন চুল। খুব কঠিন কিছু নয়। খেয়াল রাখতে হবে কিছু কৌশল।

শুরুতেই চুলের কাট ঠিক করে নিতে হবে। সে অনুযায়ী সম্পন্ন করতে হবে বাকি ধাপগুলো। এ ক্ষেত্রে তুলনামূলক সহজ এবং নিজের নিয়মিত চুলের কাট বেছে নেওয়া উচিত। চাইলে ইন্টারনেট থেকে কিছু ছবি নামিয়ে নিতে পারেন। সহজ এবং মোটামুটি সব ধরনের চেহারায় মানিয়ে যায়, এমন কিছু হেয়ার স্টাইল বেছে নেওয়াই ভালো। এ ধরনের কাটের মধ্যে আছে আন্ডার কাট, কম্ব ওভার ফেড, ফ্রেঞ্চ ক্রপ, পোম্পাডোর।

যাঁরা ছোট করে চুল কাটতে চান, তাঁরা বেছে নিতে পারেন ক্রু কাট, বিভিন্ন ধরনের ফেড কাট, সাইড পার্ট, বাজ কাট ইত্যাদি। শুধু মনে রাখতে হবে, চুল বড় থাকলে তা ছোট করা যায়, কিন্তু একবার যদি কেটে ফেলা হয়, তা ফিরিয়ে আনতে অপেক্ষা করতে হবে। আর চুল কাটার যন্ত্র সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। সঙ্গে রাখতে হবে কাট ও স্টাইলিংয়ের জন্য দুই ধরনের যন্ত্রপাতি।

default-image
নকশা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন