বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

যোগ করুন আর্দ্রতা

ফেসওয়াশের পরিবর্তে এমন কিছু দিয়ে মুখ ধুতে পারেন, যেটায় ত্বক পরিষ্কার ও আর্দ্রতা ধরে রাখার কাজ—দুটোই হবে। ছোলার ডালের বেসন ১ টেবিল চামচ। সঙ্গে আধা চা-চামচ জলপাই তেল আর ১ চা-চামচ গ্লিসারিন। প্রয়োজনমতো গোলাপজল বা পানি মিশিয়ে নিয়ে এই মিশ্রণ দিয়েই মুখ ধুয়ে নিন। সব ধরনের ত্বকের জন্যই এই মিশ্রণ ভালো। অতিরিক্ত শুষ্ক ত্বকের জন্য ১ চা-চামচ গুঁড়া দুধ, ১ চা-চামচ গ্লিসারিন আর কয়েক ফোঁটা জলপাই তেলের মিশ্রণ ব্যবহার করতে পারেন।

ত্বকে মধুর ব্যবহার

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য নিন আধা চা-চামচ মধু। সঙ্গে লেবুর রস আধা চা-চামচ ও কাঁচা দুধ ১ টেবিল চামচ। ভালোভাবে মিশিয়ে তুলার সাহায্যে মুখে লাগিয়ে ৫ মিনিট পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

অতিরিক্ত শুষ্ক ত্বকের জন্যও মধু বেশ কাজে দেয়। প্রয়োজন হবে মধু, জলপাই তেল আর যেকোনো ডালের বেসন। ১ টেবিল চামচ বেসনের সঙ্গে নিতে হবে আধা চা-চামচ মধু এবং আধা চা-চামচ জলপাই তেল। প্রয়োজনমতো গোলাপজল মিশিয়ে এই মিশ্রণ দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।

আর্দ্রতা আরও সহজে

প্রতিবার মুখ ধোয়ার জন্য যে ফেসওয়াশ ব্যবহার করেন, তাতেও যোগ করে নিতে পারেন আর্দ্রতার উপাদান। ১ চা-চামচ ফেসওয়াশ, আধা চা-চামচ গ্লিসারিন ও কয়েক ফোঁটা জলপাই তেল মিলিয়ে মুখ ধুতে পারেন।

হাত-পা ধুতে

default-image

মুখ ধোয়া যেমন জরুরি, হাত-পায়ের বেলাতেও বিষয়টি সে রকমই। ১ কাপ ময়দা (গমের ময়দা ভুসি সমেত, অর্থাৎ অপরিশোধিত) নিন। এর সঙ্গে নিন একটি মাঝারি আকারের লেবুর রসের পুরোটা। ৩ টেবিল চামচ গ্লিসারিন আর ১ টেবিল চামচ জলপাই তেল দিয়ে সব একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ দিয়ে হাত-পা ধুয়ে নিলে হাত-পায়ের ত্বক আর্দ্র থাকবে।

ধোয়ার পরও আর্দ্রতা চাই

ত্বক ধোয়ার পর আর্দ্রতার ভারসাম্য ধরে রাখতে পানিভিত্তিক ময়েশ্চারাইজার বেছে নিন মুখের জন্য। ত্বক অতিরিক্ত শুষ্ক হলে গোলাপজল ব্যবহার করুন টোনার হিসেবে। এরপর ময়েশ্চারাইজারের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা জলপাই তেল মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে নিন। প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার তৈরি করতে চাইলে লেবুর রস, জলপাই তেল আর গ্লিসারিন নিতে পারেন সমপরিমাণে। এই মিশ্রণ ময়েশ্চারাইজার হিসেবে দারুণ। বেশি পরিমাণে বানিয়ে, কাচের বয়াম বন্দী করে ফ্রিজে রেখে দিতে পারেন।

নকশা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন