default-image

সব বিয়েতেই কনে চায় একটু ভিন্নভাবে সাজতে। বিশেষ করে গায়েহলুদের অনুষ্ঠানে। ওই একটা দিনে যত নতুন কিছুর পরিকল্পনা করা যায়। গায়েহলুদে তাজা ফুলের গয়না কে না পছন্দ করে! এবার ওড়নাটাও যদি তাজা ফুলের হয়, তবে মন্দ হয় না।

নিজের বিয়ের সময় হুট করে এমন একটা ভাবনা চলে এসেছিল সংগীতশিল্পী কোনালের মাথায়। বলছিলেন, ‘আমার কাছে গায়েহলুদ মানে তাজা ফুল। বছর তিনেক আগে যখন আমার গায়েহলুদের জন্য ফুলের গয়না ফরমাশ করতে যাই, তখন হঠাৎ করেই মাথায় এল, ওড়নাটা ফুলের হলে তো বেশ হবে।’ এরপর নিজের ইচ্ছা কারিগরকে বুঝিয়ে দিতে বেগ পেতে হয়নি কোনালের। খুব খুশি ছিলেন ফুল দিয়ে গাঁথা সেই ওড়না পেয়ে।

default-image

বিয়ের বিশেষ করে হলুদের অনুষ্ঠানে অনেক কনেকেই পরতে দেখা যায় ফুলের ওড়না। পারসোনার পরিচালক নুজহাত খান বললেন, ‘যেকোনো ভিন্ন এবং সুন্দর জিনিসই কিন্তু চল হয়ে যায়। এই যেমন তাজা ফুলের ওড়না। এই ধরনের ওড়নার ব্যবহার কনে সাজে আনে ভিন্ন মাত্রা।’ তবে ফুলের গয়না বানানোর সময় কিছু বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। ওড়না বানানোর সময় একটু শক্ত ফুল ব্যবহার করতে হবে। কনে মঞ্চে বসার পর সাবধানে ওড়নাটা মাথায় দিতে হবে।’ ওড়নাটা যেহেতু ভারী হয়, তাই চুলের সাজ খুব সাধারণ রাখার পরামর্শ দিলেন তিনি। ‘ফুলের ওড়না পরলে চুল টেনে বেঁধে নেওয়াই ভালো। আর মাথায় একটা টিকলির চেয়ে বেশি কিছু না পরলেই কনেকে বেশি আকর্ষণীয় দেখাবে’, বললেন নুজহাত খান। 

default-image

অনেক ফুলের দোকানে খোঁজ মিলবে তাজা ফুলের ওড়নার। হাতে কমপক্ষে দুই দিন সময় নিয়ে ফরমাশ দিয়ে গড়িয়ে নিতে পারেন ফুলের ওড়না। এর আগে দোকানির সঙ্গে দরদাম করে নিতে ভুলবেন না! যেসব দোকানে ফুলের গয়নার ফরমাশ নেওয়া হয়, সেখানেই কথা বলতে পারেন। রাজধানীর কয়েকটি ফুলের দোকান ঘুরে জানা যায়, নকশাভেদে দাম পড়বে ৩ হাজার থেকে ৪ হাজার টাকা। এর চেয়ে বেশি দামিও হতে পারে।

ফুলের ওড়নার চারটি পাড় সাধারণত গোলাপ বা অন্য কোনো ফুল দিয়ে গাঁথা হয়। হতে পারে সেটা গোটা ফুল অথবা ফুলের পাপড়ি। তবে ভেতরে বেলি বা গাজরার কলি দিয়ে জালের মতো বোনা হয়। এবার আপনি ভেবে নিন কোন কোন ফুলের সামঞ্জস্যে আপনার হলুদের ওড়নাটা গড়িয়ে নেবেন। 

বিজ্ঞাপন
নকশা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন