বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বলা হয়, এক সময়ে মসলিন হতো প্রায় ২৮ রকম। ৩০০ কাউন্ট সুতায় বোনা সেই কাপড় হতো স্বচ্ছ, পাতলা ও নরম। ফ্যাশন হাউস কিউরিয়াসের প্রধান নকশা পরামর্শদাতা ও ফ্যাশন ডিজাইনার চন্দ্র শেখর সাহা বলেন, বর্তমানে বোনা মসলিন একেবারেই আলাদা। এই কাপড় দেখতে কিছুটা প্রাচীন মসলিনের মতো। তবে এ সময়ের তৈরি মসলিন কাপড়ও খুব সংবেদনশীল। তাই খুব সাবধানতার সঙ্গে ব্যবহারের বিকল্প নেই। এ ধরনের মসলিনের শাড়ি, সালোয়ার–কামিজ, পাঞ্জাবি বা ওড়নার ক্ষেত্রে প্রধান যত্ন হলো, পরিষ্কার করতে হবে ড্রাই ওয়াশের মাধ্যমে। তিনি আরও বলেন, মসলিন কাপড়ের রং ধীরে ধীরে হালকা হতে থাকে। যার কয়েকটি কারণের একটি, মসলিন যে সুতায় বোনা হয় তাতে পোকার লালা জড়ানো থাকে, অর্থাৎ সুতা সেদ্ধ করা হয় না। ফলে এই রং মসলিনের ভেতরের আঁশের সঙ্গে মিশে যেতে পারে না। ফলে এর রং বাতাসে, আলোতে বিবর্ণ হতে পারে।

default-image

মসলিনের বুনন হয় দুই ধরনের। একতারি বুনন ও দুইতারি বুনন। একতারি বুনন মানে এক বুননে এক সুতা ও দুইতারি বুনন মানে এক বুননে দুই সুতা। একতারি বুননের মসলিন খুব পাতলা, এর স্থায়িত্বও কম। দুইতারি বুননের কাপড় ভারী ও মজবুত হয়। এ ধরনের কাপড়ে ভারী কাজ বা এমব্রয়ডারি করা যায় অনায়াসেই। এ ছাড়া মসলিন থান হিসেবে পাওয়া যায়, ডিজাইনাররা কিনে নকশা করেন ইচ্ছেমতো। থান কাপড়ে শাড়ি বানাতে চাইলে ৪৫ থেকে ৪৭ হাত বহর থাকতে হবে। ব্লক প্রিন্ট, স্ক্রিন প্রিন্ট, এমব্রয়ডারি, কারচুপি করা মসলিনের কাপড়ও কিনতে পাওয়া যায়। মসলিনের ওপর করা নকশার রং পাকা না হওয়ার কারণে পানি থেকে দূরে রাখতে হবে। হালকা রঙের মসলিন থেকে রং ওঠার প্রবণতা কম। এ ছাড়া এই কাপড়ের পোশাক বা শাড়ি খুব হালকাভাবে ইস্তিরি করতে হবে। জোরে চাপ দিলে কাপড় ফেটে যেতে পারে, জানালেন বিশ্বরঙের কর্ণধার ও ডিজাইনার বিপ্লব সাহা।

default-image

মসলিনের তৈরি যেকোনো পোশাকই জোরে চাপ দিয়ে ও ভাঁজ করে রাখা যাবে না। এতে ভাঁজে কাপড় ফেটে যেতে পারে। তাই পেঁচিয়ে রাখা সব থেকে ভালো সমাধান। এ ছাড়া মসলিনের কাপড়ের ওপরে কোনো সুগন্ধি ব্যবহার করা যাবে না, এমন পরামর্শ দিলেন টাঙ্গাইল শাড়ি কুটিরের পরিচালক নাজিমুদ্দিন। কারণ, এতে স্প্রে করা জায়গায় রং নষ্ট হতে পারে বা কালো হয়ে যেতে পারে। রাতের বেলার মসলিন ব্যবহারের পর বাতাসে মেলে রাখতে হবে। দিনের বেলায় হালকা রোদে মেলে দিন। ঘামে ভেজা কাপড় শুকিয়ে না রাখলে জমিনের সুতা স্যাঁতসেঁতে হয়ে ফেঁসে যেতে পারে।

নকশা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন