ঘর রাঙাতে জনপ্রিয় হচ্ছে প্লাস্টিক পেইন্টের ব্যবহার। মডেল: জাকিয়া ঊর্মি।
ঘর রাঙাতে জনপ্রিয় হচ্ছে প্লাস্টিক পেইন্টের ব্যবহার। মডেল: জাকিয়া ঊর্মি।ছবি: নকশা

রঙিন দেয়াল অন্দরের সাজে যোগ করে ভিন্ন মাত্রা। তবে এটি বেশ ব্যয়সাপেক্ষ বলেই ধরে নেওয়া হতো এত দিন। কিন্তু এখন ধারণা পাল্টেছে। দেয়াল রং করানো এখন আর কঠিন কিছু নয়।

নিজের পুরোনো বাসাটিকে রঙের ছোঁয়ায় নতুন করে সাজিয়েছেন ফ্যাশন ডিজাইনার জাকিয়া ঊর্মি। জানালেন, যখন এই বাসাটি তিনি ভাড়া নেন তখন দেয়ালগুলো ছিল একেবারেই ম্যাড়মেড়ে। ঘরগুলো যতই সাজানোর চেষ্টা করতেন না কেন, ঘরকে সুন্দর দেখাতে এই দেয়ালগুলোই যেন বাধা হয়ে উঠছিল।

বিজ্ঞাপন
default-image

ঘরে নতুনত্ব আনার কথা ভাবতে গিয়ে ঊর্মি নিজেই হাতে নিলেন রং–তুলি। ইন্টারনেট থেকে দেয়াল রাঙানোর নানা তথ্য নিয়ে ঘরের দেয়ালগুলো রাঙালেন নিজের মতো করে। জাকিয়া ঊর্মি বলছিলেন, হার্ডওয়্যারের দোকানে এখন নানা রকম প্লাস্টিক পেইন্ট পাওয়া যায়। এ ধরনের রং কিনে পরিমাণমতো পানি মিশিয়ে যে কেউ রাঙাতে পারেন নিজের ঘরের দেয়াল। রঙের শেডে পরিবর্তন চাইলে সাদা রঙের ব্যবহার করতে পারেন। জাকিয়া উর্মি নিজেই জানালেন, রং করতে খরচ হয়েছে ২ হাজার টাকা।

default-image

দেয়াল রাঙানোর বিষয়টি অন্দরসজ্জায় বেশ কয়েক বছর ধরেই জনপ্রিয়তা পেতে থাকে। তবে নিজের হাতে ঘর রাঙানোর বিষয়টি জনপ্রিয়তা পায় করোনাকালে। এ সময়ে সাধারণ ছুটি থাকার কারণে দীর্ঘদিন ঘরে থাকা মানুষের বাড়তে থাকে ঘর সাজানোর প্রতি আগ্রহ। অনেককেই দেখা গেছে ঘরের দেয়াল এবং আসবাবে করেছেন নানা রঙের নিরীক্ষা। অন্দরসাজ পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ডিজাইনার কোডের ইন্টেরিয়র ডিজাইনার আবদুল্লাহ মিরাজ বলছিলেন, রং নির্মাতা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এখন সহজেই দেয়াল রাঙানোর জন্য নানা ধরনের রং নিয়ে আসছে। এর মধ্যে প্লাস্টিক পেইন্টের ব্যবহার দিন দিন বাড়ছে। আরও আছে ব্রিদ ইজি, ইজি ক্লিন ইত্যাদি। এ ধরনের রঙের গন্ধ বা ব্যবহৃত উপকরণ থেকে মানবশরীরে কোনো ধরনের রাসায়নিক বিক্রিয়া হয় না। পাশাপাশি তা সহজে পরিষ্কারযোগ্য।

বিজ্ঞাপন
default-image

তবে ঘরগুলোর দেয়াল শুধু রাঙালেই হবে না, এর সঙ্গে মানতে হবে অন্দরসজ্জার কিছু নিয়ম। এই যেমন, ঘরের যদি বেশি আসবাব থাকে তাহলে গাঢ় রঙের ব্যবহার এড়িয়ে যেতে হবে। এ ক্ষেত্রে দেয়ালে ব্যবহার করতে সফট বা মিষ্টি রং। সরাসরি সূর্যের আলো পড়ে এমন দেয়ালে রং করলে সেই রং খুব বেশি দিন টেকসই হয় না। তাই সূর্যের আলো কম পড়ে বা পড়ে না রং করার জন্য এমন দেয়াল বেছে নেওয়া ভালো। আবার ড্যামেজ দেয়ালের ক্ষেত্রে বলতে হয় সেই একই কথা। ড্যামেজ দেয়ালে রং করলে তা দীর্ঘস্থায়ী হয় না। তাই ঘরের দেয়াল রাঙানোর আগে দেয়ালের অবস্থা বুঝে নেওয়াটা খুব জরুরি।

মন্তব্য করুন