নিয়মিত ব্যায়াম সুস্থ রাখে মন ও শরীর। নকশার এই আয়োজনে মডেল হয়েছেন অভিনেতা আরিফিন শুভ।
নিয়মিত ব্যায়াম সুস্থ রাখে মন ও শরীর। নকশার এই আয়োজনে মডেল হয়েছেন অভিনেতা আরিফিন শুভ। কৃতজ্ঞতা: শোভন মেকওভার, ছবি: কবির হোসেন
default-image

বেখেয়ালি, এলোমেলো জীবন তো অনেকটাই কাটালেন। এবার একটু গুছিয়ে নিন নিজেকে। পুরুষ মানেই বেশির ভাগ ক্ষেত্রে নিজের স্বাস্থ্য বা সৌন্দর্যের প্রতি অবহেলা করার প্রবণতা থাকে। ‘ছেলেদের আবার রূপচর্চা কী’, এমন কথা তো হামেশাই শোনা যায়। এসবে কান দেওয়ার দরকার নেই। বরং নিজেকে ভালো রাখতে নজর দেওয়াই জরুরি। এত দিন যে ব্যস্ততার দোহাই দিয়ে চলেছেন, করোনা এসে সেখানেও পানি ঢেলে দিয়েছে। তাই নিজের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে এবার উঠেপড়ে লাগুন।

শরীরচর্চা, পরিমিত খাবার আর পরিচ্ছন্নতা—এই তিনে খেয়াল রাখলে ভালো থাকা ব্যাপার নয়। চলচ্চিত্র অভিনেতা আরিফিন শুভ বেশি জোর দিলেন খাবারের দিকে—‘একটা পরিপূর্ণ ডায়েট ভালো থাকতে সাহায্য করবে। অনেকে মনে করেন ফিটনেস মানেই বেশি বেশি শরীরচর্চা। এটা ঠিক নয় পুরোপুরি। ফিটনেস ধরে রাখতে কী খাচ্ছেন, সেদিকে নজর রাখার বিষয়টিই ৭০ শতাংশ গুরুত্বপূর্ণ। আমি নিজেও সেই চেষ্টা করি।’

একই সঙ্গে নিজের সৌন্দর্য ঠিক রাখতে ছোট কয়েকটি বিষয়কে অভ্যাস বানিয়ে ফেললেই হবে। শুভ যেমন মনে করেন, ত্বক পরিষ্কার রাখা, ময়েশ্চারাইজার আর সানব্লকের ব্যবহার চেহারা ঠিক রাখতে পারে।

অনেক তরুণের হাতে এখন বেশ অবসর। কেউ মেতেছেন বাগান করতে, কেউ শিখছেন রান্না। বদলে যাওয়া এই সময়ে নিজের মধ্যে আনতে পারেন আরেকটু বদল। ঘণ্টার পর ঘণ্টা তো অন্তর্জালের ফাঁদে শেষ হচ্ছে, এবার নিজের জন্য কিছু সময় ব্যয় করুন।

বিজ্ঞাপন
default-image

স্বাস্থ্যই যখন সুখের মূল

জিমে গিয়ে পেশি না বানালেও চলবে। বাসায় খালি হাতে (ফ্রি হ্যান্ড) ব্যায়াম করে নিজেকে ফিট রাখতে পারেন। ভোগ লাইফস্টাইলের জ্যেষ্ঠ ফিটনেস প্রশিক্ষক মাহমুদুল হাসান বলেন, সময় মেনে চলা, সঠিক ডায়েট আর শরীরচর্চা—এই তিন বিষয় একটা ছেলেকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। আর শরীরচর্চার জন্য জরুরি নিজের ইচ্ছাশক্তি।

পুশআপ, দড়ি লাফ, খালি হাতে ব্যায়াম, সাইক্লিং, দৌড়ানো, সাঁতার কাটার মতো শারীরিক পরিশ্রমগুলো ওজন কমাতে সাহায্য করে ভালোভাবে। ভুঁড়ি কমিয়ে শরীরে এনে দেয় ঝরঝরে ভাব। বিশেষ করে হাঁটা, দৌড়ানো, সাইক্লিং বা সাঁতারের মতো কার্ডিও ব্যায়াম প্রতিদিন ৪০ মিনিট থেকে ১ ঘণ্টা করতে পারলে দ্রুত ওজন কমে। অনেকে বাসায় ট্রেডমিলে দৌড়ানোর কাজ সারেন। তাঁরা প্রতি ঘণ্টায় ৫ দশমিক ২ কিলোমিটার বেগে দৌড়ালে ভালো ফল পাবেন। শরীরচর্চার জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত সময় সকালবেলা। তবে সকালে সময় না পেলে দিনরাতের যেকোনো সময় ব্যায়াম করা যাবে।

যাঁরা ওজন কমাতে চান, বিশেষ করে শরীরের মেদ কমাতে চান, তাঁদের জন্য মাহমুদুল হাসানের পরামর্শ, সকালে উঠে শরীরচর্চা শুরু করার আগে এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে এক টুকরা লেবুর রস আর এক চামচ মধু গুলিয়ে পান করুন। কিংবা ৪ টেবিল চামচ টক দই পানিতে গুলে চুমুক দিয়ে তারপর ব্যায়াম শুরু করুন।

ত্বকের সতেজতায়

শরীরচর্চার মতো আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিজের সৌন্দর্য ঠিক রাখা। নিজের মধ্যে তারুণ্য ধরে রাখতে চায় সবাই। তবে তার জন্য দরকার সঠিকভাবে ত্বকের পরিচর্যা। নকশার এই প্রতিবেদনের জন্য ছবি তুলতে এসে আরিফিন শুভ একটু পরপর পানি পান করছিলেন। বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দেন প্রচুর পরিমাণে পানি পান করার। এতে ভেতর থেকে ত্বকের সতেজ ভাব ফুটে ওঠে।

একইভাবে ছেলেদের ত্বক পরিষ্কার রাখতেও পানির বিকল্প নেই। বাইরে যাওয়ার আগে পানির ছিটা বা স্প্রে, বাইরে থেকে ফিরে এক আঁজলা পানির ঝাপটা সহজে ত্বক সজীব করে তুলবে। ছেলেদের জীবনযাপনভিত্তিক ব্রিটিশ সাময়িকী জিকিউ এক নিবন্ধে জানাচ্ছে পাঁচটি পরামর্শের কথা। সেগুলো হলো ক্লিনজার, টোনার, সিরাম, আইক্রিম ও ময়েশ্চারাইজার।

সৌন্দর্যচর্চার এই পাঁচ ধাপ যদি সময়সাপেক্ষ মনে হয় তবে সহজ করেও নিতে পারেন। শোভন মেকওভারের রূপ পরামর্শক শোভন সাহা দিলেন সেই বুদ্ধি—প্রতিদিন গোসলের আগে বাড়তি পাঁচ মিনিট ব্যয় করলেই হবে। বাথরুমে ঢুকে মুখে একটু পানির ঝাপটা দিন। এরপর ফেসওয়াশ দিয়ে মুখটা পরিষ্কার করে নিন। গোসলের পর মুখে একটু ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। বাইরে গেলে সানব্লক লাগিয়ে নিতে পারেন।

বাজারে থাকা অনেক সানব্লকে ময়েশ্চারাইজার থাকে, সেটা দেখে কিনতে পারেন। টাটকা মৌসুমি ফলের রস, শাকসবজি ও পানি পানের অভ্যাস ত্বক ভালো রাখে, সতেজ করে। তাই নিয়মিত সেসব রাখতে পারেন খাবার তালিকায়। অনেকে গোসলের সময় গায়ে মাখা সাবান দিয়ে মুখ পরিষ্কার করেন, যা একদম ঠিক না। কারণ, মুখের ত্বকে ক্ষার লাগলে ত্বক খসখসে হয়ে পড়ে। চোখের নিচে কালো দাগ পড়লে ভালো মানের আইসক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। চোখের নিচের দাগ কাটাতে শোভন সাহার পরামর্শ, তুলার সাহায্যে শসার রস কালচে জায়গায় লাগিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

অবশ্যই ত্বক বুঝে ফেসওয়াশ ব্যবহার করতে হবে। যাঁদের ত্বক তৈলাক্ত, তাঁরা শসাযুক্ত ফেসওয়াশে উপকার পাবেন। টোনার ব্যবহার করলে সেটাও শসাযুক্ত কি না, দেখে নিন। তৈলাক্ত ত্বকে তেলবিহীন ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে।

যাঁদের ত্বক শুষ্ক, তাঁদের জন্য শোভন সাহার পরামর্শ, মাখনযুক্ত ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারের। ফেসওয়াশ বা টোনারে মাখন বা গোলাপ ফুলের নির্যাস থাকা ভালো শুষ্ক ত্বকের জন্য। তবে যাঁদের ত্বক সাধারণ, তাঁরা সব ধরনের ফেসওয়াশ বেছে নিতে পারেন। একই সঙ্গে এ ধরনের ত্বকে শসা বা গোলাপযুক্ত উপাদানও ব্যবহার করলে ভালো ফল মিলবে। যেসব পুরুষের নিয়মিত শেভ করতে হয়, তাঁদের ত্বক ভালো রাখতে শেভের পর অবশ্যই আফটার শেভ (তরল) ব্যবহার করুন। আফটার শেভ বাম ব্যবহার করতে হবে। বগল বা আন্ডারআর্মসে কালচে দাগ পড়লে সেটা বডি স্প্রে ব্যবহারের কারণে হতে পারে। তাই বডি স্প্রে ব্যবহার করতে হবে একটু দূরত্ব রেখে। চুল ভালো রাখতে নিয়মিত শ্যাম্পু করা জরুরি। একই সঙ্গে ছেলেরা মেহেদি বেটে চুলে দিয়ে পরে ধুয়ে ফেলতে পারেন। এতে চুল মজবুত হয়।

বিজ্ঞাপন

পরিমিত আহার

পুরুষের ফিটনেস ধরে রাখার আরেকটি দারুণ উপায় ঠিকমতো খাবার খাওয়া। তবে সেটা বেশি বেশি নয়। খাবার খেতে হবে সঠিক ডায়েট মেনে। অর্থাৎ ওজন ও উচ্চতা বুঝে পুষ্টিবিদের পরামর্শে খাবারের তালিকা তৈরি করে নিতে হবে। শর্করা, আমিষ, ভিটামিন, মিনারেল ঠিক রেখে খাবার গ্রহণ করলে মিলবে চমৎকার স্বাস্থ্য, বলছিলেন পুষ্টিবিদ আখতারুন নাহার। অনেকে ওজনে ভুলভাল ডায়েট করে শরীরের ক্ষতি ডেকে আনেন। সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

এবার তাহলে শুরু হোক যাত্রা (মিশন)। ভালো থাকার শুভসূচনা করতে এর চেয়ে ভালো সময় কি আর হতে পারে!

default-image
মন্তব্য পড়ুন 0