স্বাস্থ্য জিজ্ঞাসা

আপনার প্রশ্ন, চিকিৎসকের পরামর্শ

বিজ্ঞাপন
default-image

কয়েক দিন ধরে রাত ১১টা বাজতেই আমার মাথাব্যথা করে, পেটব্যথার সঙ্গে বমি বমি বোধও হয়, শরীরে অস্থিরতা কাজ করে। একেক রাতে একেক সমস্যা দেখা দেয়। দিনের বেলা কোনো সমস্যা থাকে না। এক বছর আগে লঞ্চে উঠতে গিয়ে পা পিছলে কাদায় পড়ে গিয়ে ব্যথা পেয়েছিলাম, আমার মনে হয় এই সমস্যার সেটাই কারণ।—নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

এক বছর আগে কাদায় পড়ে যাওয়ার সঙ্গে এসব উপসর্গের কোনো সম্পর্ক নেই। মনে হচ্ছে, আপনার রাতের বেলা গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা হয়। তবে এটি আইবিএস নামে একধরনের সমস্যাও হতে পারে, যার কারণ মূলত উদ্বেগ আর মানসিক চাপ। এ নিয়ে অতিরিক্ত উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই।

পরামর্শ দিয়েছেন— ডা. আ ফ ম হেলালউদ্দিন, মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ, ঢাকা।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ছোটবেলায় আমার পা পুড়ে যায়। পুরো পায়ে পোড়ার দাগ এখনো রয়েছে। সেই সঙ্গে পায়ের চামড়া বিভিন্ন জায়গায় কুঁচকে যায়। কখনো কি আমার পায়ের দাগ যাবে না? মলম ব্যবহারে পায়ের পোড়া দাগ চলে যায় শুনেছি। কোন মলম ব্যবহার করলে আমার পায়ের অবস্থা ঠিক আগের মতো হয়ে যাবে?—সরাফাত জামিল, মাদারীপুর।

অনেক দিনের পুরোনো দাগ সাধারণত কোনো মলমে যেতে চায় না। দাগের ধরন আর স্থায়িত্বের ওপর নির্ভর করবে এটি। তবে চিকিৎসার মাধ্যমে কিছুটা দূর করা সম্ভব। আপনি একজন অভিজ্ঞ চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।

পরামর্শ দিয়েছেন— অধ্যাপক ডা. মো. আসিফুজ্জামান, চর্মরোগ বিভাগ, গ্রিনলাইফ মেডিকেল কলেজ, ঢাকা।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আমি রোজ রাতে ঘুম ভালো করার জন্য ঘুমানোর আগে হালকা গরম পানির সঙ্গে হলুদ মিশিয়ে খাই। এটার ভালো ও খারাপ দিক সম্পর্কে একটু জানতে চাই।—হিরন, মিরপুর, ঢাকা।

হলুদ মেশানো পানি খেলে ঘুম ভালো হয়, এমনটা নিশ্চিত হয়ে বলা যায় না। তবে আয়ুর্বেদে ঘুমানোর আগে খানিকটা হলুদ মেশানো দুধ বা চা পান করার কথা বলা আছে। একে বলা হয় সোনালি পানীয়। হলুদে অ্যান্টি–অক্সিডেন্ট আর অ্যান্টি-ইনফ্লামেটোরি উপাদান আছে, যা ব্যথা বেদনা, প্রদাহ বা বাত কমায়।

পরামর্শ দিয়েছেন—আখতারুন নাহার, পুষ্টিবিদ।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আমার বয়স ১৩ বছর। প্রায় ৮-৯ মাস ধরে আমার অনেক মাথাব্যথা। রাতে ঘুমাতে পারি না। ঠিকমতো পড়তে পারি না। ঘাড়ব্যথাও আছে। বেশি শব্দ ও আলোতে সমস্যা হয়। কী করব?—অনুরাগ দেবনাথ, বরিশাল।

লক্ষণ শুনে মনে হচ্ছে, এটা মাইগ্রেনের ব্যথা। তবে চোখে কোনো সমস্যা আছে কি না, সেটাও দেখা দরকার। মাইগ্রেনের ব্যথা ঘুমের সমস্যায়, অতিরিক্ত শব্দ ও আলোতে বাড়ে। মাইগ্রেনের তীব্রতা কমাতে কিছু ওষুধ দেওয়া হয়, যা সাধারণত চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করেই সেবন করা উচিত। তার সঙ্গে জীবনাচরণেও কিছু পরিবর্তন আনতে হবে। যেমন যথাসময়ে খাওয়া, বেশিক্ষণ খালি পেটে না থাকা, পর্যাপ্ত ঘুম, রোদ এড়িয়ে চলা, কিছু খাদ্যাভ্যাসের পরিবর্তন।

পরামর্শ দিয়েছেন—ডা. সেলিম শাহী, সহযোগী অধ্যাপক, জাতীয় নিউরোসায়েন্স ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রশ্ন পাঠানোর ঠিকানা

স্বাস্থ্য জিজ্ঞাসা

ই-মেইল: proshastho@prothomalo.com

ফেসবুক পেজ: fb.com/ProShastho

ডাকযোগে: প্র স্বাস্থ্য, প্রথম আলো, ১৯ কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন