প্র স্বাস্থ্য

স্বাস্থ্য জিজ্ঞাসা

আপনার প্রশ্ন, চিকিৎসকের পরামর্শ

আপনার প্রশ্ন, চিকিৎসকের পরামর্শ
বিজ্ঞাপন

আমার ছেলের বয়স ১১ বছর। ২-৩ মাস ধরে তার রক্তে প্লাটিলেট ৬০ হাজার থেকে ৩ লাখ ২০ হাজারের মধ্যে দ্রুত ওঠানামা করছে। চিকিৎসকের পরামর্শে ইডিওপ্যাথিক থ্রম্বোসাইটোপেনিক পারপুরার (আইটিপি) জন্য স্টেরয়েড–জাতীয় ট্যাবলেট কর্টান (৪৫ থেকে ৫০ মিলিগ্রাম) খাচ্ছে। ওজন ৪৫ থেকে ৫০ কেজি হয়ে গেছে। ডাক্তার বলছেন, এটা স্বাভাবিক। এভাবে প্লাটিলেটের ওঠানামা স্বাভাবিক কি?—সুনিতা দে, সিলেট

পরামর্শ: আইটিপি হলে প্লাটিলেট কমে যাবে, এটাই স্বাভাবিক। এ জন্য যদি স্টেরয়েড–জাতীয় ওষুধ খাওয়া হয়, তাহলে প্লাটিলেট বেড়ে যেতেও পারে। প্লাটিলেট নেমে যায় সাধারণত স্টেরয়েড উইথড্র বা বন্ধ করার পর। স্টেরয়েড শুরু করলে একটি নির্দিষ্ট সময়ের পর সেটা একটি নির্দিষ্ট নিয়মে ধাপে ধাপে বন্ধ করতে হয়ে। ধাপে ধাপে বন্ধ করার এ নিয়মকে বলে ট্যাপারিং। ট্যাপারিংটা সঠিক নিয়মে না হলেও এমনটা হতে পারে৷

স্টেরয়েড খেলে ওজন বেড়ে যাওয়ার পাশাপাশি অনেকগুলো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়। তারপরও স্টেরয়েডই আইটিপির রোগীদের জন্য এখন পর্যন্ত মূল ওষুধ। একজন অভিজ্ঞ রক্তরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। ঝুঁকি ও লাভক্ষতির হিসাব করে তিনি প্রয়োজনে বিকল্প চিকিৎসাপদ্ধতির কথাও বিবেচনা করবেন।

পরামর্শ দিয়েছেন—ডা. গুলজার হোসেন, রক্তরোগ বিশেষজ্ঞ।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আমার বয়স ২০ বছর। আমার দেহের ওজন ৭০-৮০ কেজি। আমার উচ্চতা ৫ ফুট ৫ ইঞ্চি। অনেক আগে থেকেই আমার ঘাড়ব্যথা করে। বিশেষ করে ঘাড়ের নিচের দিকে নিচের অংশে ব্যথা করে। মাথা ওপরের দিকে করে চাপ দিলে ব্যথা অনুভব হয়। মাথা নিচের দিকে করে চাপ দিলেও ব্যথা বুঝতে পারি। এতে আমি অস্বস্তি বোধ করি। এখন আমার কী করা উচিত?—নাসিমুল

পরামর্শ: সম্ভবত আপনার ঘাড়ের মেরুদণ্ডে সমস্যা হয়েছে। যাকে স্পনডাইলিসিস বলা হয়। ঘাড়ের এক্স-রে বা এমআরআই করলে বিষয়টা পরিষ্কার হবে। আপনি কিছু ব্যায়াম করলে আরাম বোধ করবেন। চিত হয়ে শুয়ে মাথার নিচে একটি বালিশ রেখে থুতনি গলার দিকে নিন ১০ বার ২ সেট করে ২৪ ঘণ্টায় ৫ বেলা। বসা অবস্থায় ডান কান কাঁধের দিকে, আবার বাঁ কান কাঁধের দিকে নিন ১০ বার করে প্রতিদিন ৩ বেলা। গরম সেঁক দেবেন ১০ মিনিট। অনেকক্ষণ ঘাড় নিচু করে কোনো কাজ করবেন না।

পরামর্শ দিয়েছেন—এহসানুর রহমান, সহযোগী অধ্যাপক, ফিজিওথেরাপি, সিআরপি।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আমি ৩৮ বছর বয়সের এক নারী। আমি ডায়াবেটিসের রোগী। পাঁচ বছর আগে আমার ডান বগলে ফোড়া হয় এবং সেটি অস্ত্রোপচার করার পর ভালো হয়। এখন প্রতিবছর গরমের সময় আমার দুই বগলেই ফোড়া হচ্ছে। এর থেকে পরিত্রাণের উপায় কী?—নাজিয়া, যশোর

পরামর্শ: অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস শরীরের বিভিন্ন স্থানে সংক্রমণ ও ফোড়ার জন্য দায়ী। রক্তে শর্করা খালি পেটে প্রতি লিটারে ছয় মিলিমোল ও খাবার পর আট মিলিমোল নিচে রাখার চেষ্টা করবেন। বারবার বগলে ফোড়া হলে তাকে হাইড্রাটিনাইটিস সাপুরিটিভা বলা হয়। ফোড়ায় সংক্রমণ থাকলে অ্যান্টিবায়োটিক লাগবে, সঙ্গে অ্যান্টিসেপটিক ড্রেসিং, দরকার হলে মলম। অনেক সময় দীর্ঘদিন অ্যান্টিবায়োটিক চালাতে হতে পারে।

পরামর্শ দিয়েছেন— অধ্যাপক ডা. মো. আসিফুজ্জামান, বিভাগীয় প্রধান, চর্ম বিভাগ, গ্রিন লাইফ মেডিকেল কলেজ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন