default-image

ডুয়োলিঙ্গো

নতুন একটা ভাষা শিখতে গেলে নতুন নতুন শব্দের সঙ্গে পরিচিত হতে সবারই একটু কষ্ট হয়। তবে এ বিষয়টিকে চমৎকার গ্রাফিকসের সাহায্যে সহজভাবে উপস্থাপন করে ডুয়োলিঙ্গো। এই ওয়েবসাইটে গিয়ে ই–মেইল ঠিকানা ব্যবহার করে প্রথমে অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। এরপর ধাপে ধাপে শেখা যাবে পছন্দসই ভাষা। ইংরেজি, স্প্যানিশ, জার্মান, চীনা, জাপানিসহ সারা পৃথিবীর নানা রকম ভাষা শেখার সুযোগ থাকছে এখানে। আইওএস, অ্যান্ড্রয়েড বা উইন্ডোজ—যেকোনো প্ল্যাটফর্মেই ডুয়োলিঙ্গোর অ্যাপ ব্যবহার করে ভাষা শেখা যাবে। প্রতিটি ধাপ শেষে শিক্ষার্থীদের অনুপ্রেরণা দিতে নানা রকম ‘অ্যাচিভমেন্ট’ থাকে এই অ্যাপে। অ্যাডভান্স ও বিগিনার—দুভাবেই শুরু করা যাবে ভাষা শেখার ক্লাস। সারা বিশ্বের প্রায় ৩ কোটি ভাষা শিক্ষার্থীর কাছে প্রিয় এই অ্যাপটিতে সব সেবা পাওয়া যাবে বিনা মূল্যে।

ওপেন কালচার

বিশ্বের বহুল ব্যবহৃত ভাষা শেখার জন্য সেরা একটি সমাধান হলো ওপেন কালচার। এই ওয়েবসাইটে অর্ধশত ভাষা শেখার সুযোগ আছে। এখানে ভাষা সম্পর্কিত কয়েক হাজার অডিও টিউটোরিয়াল পাওয়া যায়। যেগুলো বিনা মূল্যে ডাউনলোড করে যে কেউ তাঁর পছন্দমতো ভাষা শেখা শুরু করতে পারেন। ফারসি, ইসডোনিয়াক, আইসল্যান্ডিকের মতো ভাষা শেখার সুযোগও থাকছে এখানে। অডিও টিউটোরিয়াল হওয়ার কারণে যে কেউ চাইলে রাস্তায় চলতে চলতেও শিখে ফেলতে পারেন নতুন কোনো ভাষা। বিনা মূল্যে ব্যবহার করা যাবে এ সেবাটিও।

বিজ্ঞাপন

ব্যাবেল

অনলাইনে অধিকাংশ ভাষা শেখার অ্যাপ বা ওয়েবসাইটগুলোর মূল লক্ষ্য থাকে আপনাকে নতুন একটি ভাষায় কথা বলা শেখানো। তবে ব্যাবেল একটু আলাদা। নতুন ভাষা বলার পাশাপাশি লেখা, শোনা ও পড়ার প্রতি জোর দেয় এই অ্যাপটি। একেবারে প্রথম থেকে শুরু করার জন্য এই অ্যাপে আছে কিছু প্রাথমিক শিক্ষা। এ ছাড়া প্রতি মাসে ৬০০ টাকা খরচ করলে অভিজ্ঞতা বাড়ানোর জন্য অ্যাডভান্সড কোর্সও পাওয়া যাবে ব্যাবেলে। এই ওয়েবসাইট থেকে ইংরেজি, ফ্রেঞ্চ, জার্মান, পর্তুগিজ, সুইডিশসহ মোট ১৪টি ভাষা শেখা যাবে। কোনো ভাষা কেবল এক-আধটু না জেনে, পুরোপুরি দক্ষ হতে চাইলে ব্যাবেল সম্ভবত সবচেয়ে কার্যকরী।

বুসু

যন্ত্রের সংকেতে বাঁধা ভাষা শেখার বাইরে এসে নতুন করে এ বিষয় নিয়ে কাজ করেছে বুসু। অন্যান্য সেবার মতোই টিউটোরিয়াল বা অ্যাপে লেসনের মাধ্যমে ১২টি ভাষা শেখার সুযোগ থাকছে এই সেবায়। ১৫ ধরনের আলাদা আলাদা ‘ইন্টারফেস’ ব্যবহার করে আপনার ভাষা শেখার কাজটিকে আরও আনন্দময় করে তুলতে পারেন। তবে বুসুতে চমক অপেক্ষা করে লেসন শুরু করার পরপরই। প্রতিটি লেসন শেষে আপনি আপনার শেখা ভাষায় কোনো স্থানীয় মানুষের সঙ্গে নতুন শেখা বিদ্যা কাজে লাগিয়ে আলাপ করতে পারবেন। সেটি হতে পারে মেসেজ কিংবা ভয়েসে। তিনি আপনার শেখার মান বুঝে আপনাকে ‘রেটিং’ বা নম্বর করবেন। এভাবে সারা বিশ্বের প্রায় নয় কোটি স্থানীয় ভাষাভাষী এই অ্যাপে আপনাকে নতুন ভাষা শিখতে সাহায্য করবে। ইংরেজি, জাপানিজ, আরবি, পোলিশ, টার্কিশ, রুশসহ সারা বিশ্বের বহুল ব্যবহৃত ভাষাগুলো শেখার সুযোগ থাকছে এখানে। এই ওয়েবসাইট থেকে কিংবা আইওএস বা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ থেকেই ব্যবহার করা যাবে বুসু। কোনো রকম খরচ ছাড়াই যেকোনো ভাষার পাঠ দিচ্ছে এ সেবাটি।

ম্যাঙ্গো ল্যাঙ্গুয়েজ

বাংলা ভাষার ‘আমজনতা’ শব্দটির সঙ্গে মিলিয়েই এই নামকরণ করা হয়েছে কি না, কে জানে! এই সেবার মাধ্যমে ধরাবাঁধা বই-পুস্তকের নিয়মে ভাষা না শিখে বরং কীভাবে পৃথিবীর অন্য ভাষাভাষীদের সঙ্গে নির্ধারিত বিষয় নিয়ে আলাপ করতে হয়, সেটি শেখা যায়। শব্দের অর্থ, উচ্চারণ, ব্যাকরণ আর সংস্কৃতিভেদে ভাষা চর্চার আলাদা আলাদা দিক নিয়ে শেখা যায় ম্যাঙ্গো ল্যাঙ্গুয়েজে। ভাষা শিখে ব্যবহারকারী যেন তাঁর বিদ্যাটা কাজে লাগাতে পারেন, সেটিই মূল লক্ষ্য। প্রাথমিক কোর্সগুলো কিন্তু বিনা মূল্যেই পাওয়া যাবে এখানে। এ ছাড়া কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বা লাইব্রেরি চাইলে তাদের সব শিক্ষার্থীর জন্য কিছু অর্থ খরচ করেই এই সেবা ব্যবহারের সুযোগ করে দিতে পারে। এই ওয়েবসাইটের পাশাপাশি অ্যাপেও এই সেবা ব্যবহারের সুযোগ থাকছে।

সূত্র: ইনক ডট কম

প্র স্বপ্ন নিয়ে থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন