বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তিনটি প্রোগ্রামের অধীনে এই বিভাগে এক হাজারের বেশি ছাত্রছাত্রী বিভিন্ন ব্যাচে পড়ছেন। চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য ইন্টার্নশিপ ও চাকরির ব্যবস্থাও করে ইইই বিভাগ ও ক্যারিয়ার বিভাগ। বিভাগের অ্যালামনাইরা বিদ্যুৎ, টেলিকম ও ইলেকট্রনিকস শিল্পে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে কর্মরত আছেন। যুক্তরাজ্য, জার্মানি, সুইডেন, ফিনল্যান্ড, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়াসহ বিভিন্ন দেশে স্নাতকোত্তর ও ডক্টরেটও করছেন অনেক শিক্ষার্থী।

সাউথইস্টের ইইই বিভাগের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে মোট আটজন পিএইচডি ডিগ্রিধারী শিক্ষক রয়েছেন। এই বিভাগ থেকে প্রায় ৩ শ’র বেশি গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। গবেষণায় সব সময়ই উৎসাহ দেওয়া হয় ছাত্রছাত্রীদের।

অধ্যাপক মুহিবুল হক ভূঞার উদ্যোগে ইইই বিভাগ আইইবির অ্যাক্রেডিটেশন বোর্ড থেকে অ্যাক্রেডিটেশন সনদ পেয়েছে। বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় প্রধান হিসেবে আছেন অধ্যাপক ড. নাহিদ আখতার জাহান। এ ছাড়াও এই বিভাগে আছেন সহযোগী অধ্যাপক ড. নূর হোসেন মো. আরিফুল আজিম, তিনি সান্ধ্যকালীন ও ফ্রাইডে প্রোগ্রামের সমন্বয়ক। এই শিক্ষকদের প্রত্যেকেই নিজ নিজ ক্ষেত্রে স্বনামধন্য। বিভিন্ন গবেষণার সঙ্গে তাঁদের যুক্ততা আছে। জানুয়ারি ও জুলাই মাসে ইইই বিভাগ থেকে জার্নাল প্রকাশিত হয়, যেখানে স্থান পায় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের গবেষণা প্রবন্ধ।

শিক্ষকেরা জানান, সাউথইস্টের অন্যতম বিশেষত্ব হলো ‘ইন্ডাস্ট্রি বেজড কারিকুলাম’। ইইই ক্লাব ও আইইইই স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চের মাধ্যমে নানা রকম সহশিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

সাউথইস্টের ইইই বিভাগে চার বছর মেয়াদি স্নাতকের মোট খরচ ৫ লাখ ৯৮ হাজার ৫০০ টাকা। সান্ধ্যকালীন প্রোগ্রামে ২ লাখ ৪৯ হাজার টাকা ও ফ্রাইডে প্রোগ্রামে ২ লাখ ৬২ হাজার ৮০০ টাকা। বর্তমানে এই বিভাগের ভর্তি ফি-তে ৬০% এবং প্রথম সেমিস্টারের টিউশন ফিতে ২৫% ছাড় চলছে। এ ছাড়াও রয়েছে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ১২ ধরনের বৃত্তি।

বর্তমানে ফল সেমিস্টারের ভর্তি প্রক্রিয়া চলছে। আগামী নভেম্বর মাস থেকে নতুন শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু হবে। অনলাইনের মাধ্যমে বা বনানীর ক্যাম্পাসে গিয়ে সরাসরি ভর্তি হওয়া যাবে। বিস্তারিত জানতে পারেন ইইই বিভাগের ওয়েবসাইটে

প্র স্বপ্ন নিয়ে থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন