বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

করোনাকালে নানামুখী উদ্যোগের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের দক্ষ হিসেবে গড়ে তুলতে প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন বিভাগের শিক্ষকেরা। মাইক্রোসফট টিমস সফটওয়্যারের মাধ্যমে সুশৃঙ্খলভাবে পাঠদান চলছে। এ ছাড়া জনপ্রিয় অনলাইন শিক্ষার প্ল্যাটফর্ম কোর্সেরার সঙ্গেও বিশ্ববিদ্যালয়ের চুক্তি হয়েছে। ফলে পছন্দের যেকোনো বিষয়ে শিক্ষার্থীরা বিনা মূল্যে কোর্সে অংশগ্রহণ করতে পারেন। প্রেজেন্টেশন, মৌখিক পরীক্ষা, কর্মশালা, ওয়েবিনার, সবই চলছে অনলাইনে।

default-image

এআইইউবির প্রকৌশল অনুষদের বহু প্রাক্তন শিক্ষার্থী দেশ-বিদেশের নামী প্রতিষ্ঠানে কাজ করছেন। গুগলের প্রিন্সিপাল ইঞ্জিনিয়ার পদে আছেন কম্পিউটার প্রকৌশল বিভাগের সাবেক ছাত্র জাহীদ সবুর। ইইই বিভাগের সাবেক ছাত্রী তারজিনা ইসলাম বর্তমানে বিখ্যাত প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপলে কর্মরত আছেন। তারজিনা বলেন, ‘এআইইউবির বিভিন্ন ক্লাবগুলো ছাত্রছাত্রীদের ভবিষ্যৎ কর্মজীবনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় প্রস্তুত হতে সহায়তা করে।’

আইইইই এআইইউবি স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চ, এআইইউবি কমিউনিটি অব ইঞ্জিনিয়ারিং স্টুডেন্টস, ইঞ্জিনিয়ারিং স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ এআইইউবি ইউনিট ফেস—বিভাগের সবগুলো ক্লাবই সক্রিয় আছে।

এআইইউবির প্রকৌশল অনুষদের অনেক শিক্ষার্থী বিশ্বের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে আছেন। তাঁদের মধ্যে একজন মো. ইসমাইল হোসেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া, ডেভিসে পোস্ট ডক্টরাল স্কলার হিসেবে কর্মরত আছেন। ইসমাইল বলেন, ‘শিক্ষার মানোন্নয়নে গবেষণার কোনো বিকল্প নেই। শুরু থেকেই প্রকৌশল অনুষদ শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের গবেষণার বিষয়ে বেশ গুরুত্ব দিয়ে আসছে।’ ২০১৯ সাল থেকে ‘ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন রোবোটিকস, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড সিগন্যাল প্রসেসিং টেকনিকস’ নামের একটি আয়োজন শুরু করেছে এআইইউবি। দুই বছর পরপর আয়োজিত এই সম্মেলনে বিশ্বের নামী গবেষক, অধ্যাপকেরা অংশ নেন। আইইইই এআইইউবি স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চ ২০১৯ সালে দ্বিতীয়বারের মতো অর্জন করে সম্মানসূচক ‘আইইইই রিজিওনাল এক্সেমপ্লারি স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চ অ্যাওয়ার্ড ২০১৯ ’। এ ছাড়াও ২০১৫ সালে অনুষদের প্রাক্তন শিক্ষার্থী সাফায়াত আহমেদ পেয়েছেন ‘জয়বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড’। এআইইউবি রোবোটিক ক্রু ২০১৬ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত টানা চারবার যুক্তরাষ্ট্রের উতাহ প্রদেশে অনুষ্ঠিত ইউনিভার্সিটি রোভার চ্যালেঞ্জের চূড়ান্ত পর্বে অংশ নিয়েছে। এ ছাড়া ২০২১ সালে আন্তর্জাতিকভাবে গবেষণাপত্রের জন্য প্রসিদ্ধ সংস্থা ‘স্কোপাস’–এর নিবন্ধন পেয়েছে অনুষদের নিজস্ব গবেষণা জার্নাল ‘এআইইউবি জার্নাল অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল অনুষদের ডিন এ বি এম সিদ্দিক হোসেন বলেন, ‘সুবিশাল স্থায়ী ক্যাম্পাস, উন্নত অবকাঠামো আর আধুনিক প্রযুক্তির সমন্বয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে তৈরি হয়েছে জ্ঞান আহরণের এক চমৎকার পরিবেশ।’

যে শিক্ষার্থীরা এআইইউবির প্রকৌশল অনুষদে পড়তে চান, বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন। প্রতি শিক্ষাবর্ষে তিনটি সেমিস্টারে শিক্ষার্থীদের ভর্তির সুযোগ দেওয়া হয়। জানুয়ারি, মে ও সেপ্টেম্বর মাসে পর্যায়ক্রমে স্প্রিং, সামার ও ফল সেমিস্টার শুরুর আগে আগ্রহী প্রার্থীরা ভর্তির সুযোগ পান।

অনুষদে ভর্তির আবেদনের জন্য একজন আগ্রহী প্রার্থীর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় সম্মিলিতভাবে জিপিএ–৫ এবং সেই সঙ্গে যেকোনো একটিতে ন্যূনতম জিপিএ ২.৫ থাকতে হবে। লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরাই ভর্তির সুযোগ পান।

প্র স্বপ্ন নিয়ে থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন