default-image

যন্ত্রের বুদ্ধিমত্তায় নির্ভর করার ফল হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছে স্কটল্যান্ডের এক ফুটবল দল। বল ভেবে পুরো খেলাজুড়ে তাদের স্বয়ংক্রিয় ক্যামেরা ধারণ করেছে সহকারী রেফারির ন্যাড়া মাথা।

স্কটল্যান্ডের কালেদোনিয়ান স্টেডিয়ামে গত ২৪ অক্টোবর স্থানীয় ফুটবল ক্লাব ইনভার্নেস কালেদোনিয়ান থিস্টলের বিপক্ষে মাঠে নামে এয়ার ইউনাইটেড।

খেলার ভিডিও ধারণ ও সম্প্রচারের জন্য ক্যামেরাম্যান নিয়োগ না দিয়ে ফুটবল দলটি নির্ভর করেছে স্বয়ংক্রিয় ক্যামেরার ওপর। আর তাতেই হয়েছে হিতে বিপরীত।

সেদিন ইনভার্নেস কালেদোনিয়ান থিস্টলের এ মৌসুমের প্রথম গোলটি করেন সেন্টার ফরোয়ার্ড নিকোলা তোদোরভ। অথচ গোল করার পর সে গোল দেখার সৌভাগ্য জোটেনি ভক্তকুলের। ক্যামেরা ঘুরেফিরে তাক করা হয় লাইনসম্যানের ন্যাড়া মাথায়।

বিজ্ঞাপন
default-image

সম্প্রচারকর্মী নিয়োগ দেওয়া ব্যয়বহুল মনে হওয়ায় তুলনামূলক ছোট ফুটবল দলগুলো কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তানির্ভর ক্যামেরার ওপর নির্ভর করে। এ ধরনের ক্যামেরা বিক্রি করে ডেনমার্কের কোপেনহেগেনভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ভিয়ো টেকনোলজিস। তবে কালেদোনিয়ান সে ক্যামেরা ব্যবহার করেছে কি না, তা জানার সুযোগ হয়নি।

যুক্তরাজ্যের ডেইলি মিররের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভিয়ো টেকনোলজিসের ক্যামেরা ও ট্রাইপড বিক্রি হয় ১ হাজার ৫০ ডলারে। সঙ্গে গ্রাহক ফি হিসেবে বছরে আরও ১ হাজার ১০০ থেকে ১ হাজার ৫০০ ডলার দিতে হয়। এতে প্রত্যেক খেলোয়াড়কে আলাদা করে ট্র্যাক করার প্রযুক্তি দিয়ে থাকে তারা। সে তুলনায় সম্প্রচারকর্মী নিয়োগ দিয়ে খেলা সম্প্রচার করা ঢের ব্যয়সাপেক্ষ।

ক্যামেরা যেভাবে ভুল করল

মন্তব্য পড়ুন 0