ব্যস্ত জীবনে মানুষের জলখাবারের অনেকাংশই এখন কেক, চিকেন নাগেট আর পাউরুটি-বানের দখলে। এই খাবারগুলো ‘অতি প্রক্রিয়াজাত’ খাবারের তালিকায় পড়ে। ফ্রান্সের গবেষকেরা বলছেন, এসব খাবারের সঙ্গে ক্যানসারের কোনো না কোনো যোগসূত্র থাকতে পারে। ১ লাখ ৫ হাজার মানুষের ওপর গবেষণা চালিয়ে এ সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন তাঁরা। অংশগ্রহণকারীদের অধিকাংশই মধ্যবয়সী নারী। গবেষকেরা জরিপে অংশগ্রহণকারীদের পাঁচ বছর ধরে পর্যবেক্ষণ করেছেন।

গবেষণায় বিজ্ঞানীরা দেখেছেন, খাদ্যতালিকায় অতি প্রক্রিয়াজাত খাবারের উপস্থিতি যত বেশি, ক্যানসারের ঝুঁকিও তত বেশি।

ফ্রান্সের সরবোন প্যারিস সিটি ইউনিভার্সিটির গবেষক দলটি মানুষের খাদ্যাভ্যাসের ওপর ওই জরিপটি চালায়। গবেষণায় প্রাপ্ত ফলাফল ব্রিটিশ মেডিকেল জার্নালে গত বুধবার প্রকাশিত হয়েছে।

অতি প্রক্রিয়াজাত খাবার কোনগুলো
এ তালিকায় সবার আগে রয়েছে ব্যাপক হারে প্রস্তুত ও বাজারজাত করা পাউরুটি ও বান। রয়েছে চকলেট বার ও মিষ্টান্ন। মিষ্টি অথবা মসলাদার স্ন্যাক্স, সোডা ও মিষ্টি পানীয়, মিটবল, হাঁস-মুরগি ও মাছের নাগেট, ইনস্ট্যান্ট নুডলস ও স্যুপ, হিমায়িত অথবা দীর্ঘ সময় ধরে সংরক্ষিত প্রস্তুতকৃত খাবার এবং চিনি, তেল ও চর্বি দিয়ে তৈরি খাবারও রয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আগেই জানিয়েছে, প্রক্রিয়াজাত মাংস কিছুটা হলেও ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ায়। এ ছাড়া ধূমপানের পর স্থূলতাকে ক্যানসারের সবচেয়ে বড় প্রতিরোধযোগ্য কারণ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন বিজ্ঞানীরা। এ ক্ষেত্রে পরিমিত খাদ্যাভ্যাস ক্যানসারের ঝুঁকি থেকে বাঁচার সবচেয়ে সহজ উপায়।

গবেষণায় প্রাপ্ত ফলাফল
ব্রিটিশ মেডিকেল জার্নালে প্রকাশিত গবেষণার ফলাফলে দেখা গেছে, খাদ্যতালিকায় অতি প্রক্রিয়াজাত খাবারের পরিমাণ যদি ১০ শতাংশ বাড়ে, তাহলে ক্যানসার আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ার হার ১২ শতাংশ বাড়ে। গড়ে ১৮ শতাংশ মানুষ অতি প্রক্রিয়াজাত খাবারের ওপর নির্ভরশীল। আর বছরে গড়ে ১০ হাজার মানুষের ৭৯ জনের দেহে ক্যানসার ধরা পড়ে।

নিবন্ধটির উপসংহারে গবেষকেরা বলেছেন, অতি প্রক্রিয়াজাত খাবারের ওপর নির্ভরশীলতা যে দ্রুত হারে বাড়ছে, তাতে আগামী দশকে ক্যানসার রোগীর সংখ্যা নাটকীয়ভাবে বেড়ে যাবে। তবে এ ব্যাপারে আরও বড় পরিসরে গবেষণা প্রয়োজন বলে উল্লেখ করেছেন তাঁরা।

সতর্কসংকেত
যুক্তরাজ্যের কুয়াড্রাম ইনস্টিটিউটের ইয়ান জনসন বলেছেন, অতি প্রক্রিয়াজাত খাবারের যে সংজ্ঞা ব্যবহার করেছেন গবেষকেরা, তার পরিসর অনেক বড়। কাজেই এই গবেষণায় অতি প্রক্রিয়াজাত খাবারের সঙ্গে ক্যানসারের কার্যকরী সংযোগের বিষয়টি স্পষ্ট নয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন