default-image

স্ত্রীরোগ
* আমার বয়স ২৪। বাঁ পাশের ওভারিতে সম্প্রতি একটি সিস্ট ধরা পড়েছে। এটা কি অস্ত্রোপচার করে ফেলা উচিত? একবার অস্ত্রোপচার করলে কি এটা আবার হতে পারে? অস্ত্রোপচারের পর কোনো সমস্যা হবে কি?

 নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

বরিশাল।

পরামর্শ: নানা কারণে সিস্ট হতে পারে। সিস্টের আকার আর চরিত্র বুঝতে হলে ভালো আলট্রাসনোগ্রাম করতে হবে। সেই সঙ্গে সিএ ১২৫ আর সিএ ১৯৯ নামে দুটি রক্তের পরীক্ষা করলে সম্ভাব্য জটিলতা সম্পর্কে আন্দাজ করা যায়। সব সময় যে অস্ত্রোপচার লাগবেই তা নয়। উপসর্গ, আকার, চরিত্র, জটিলতার ঝুঁকি ইত্যাদি সব মিলিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আর অস্ত্রোপচার করলেও ওভারির সিস্ট আবার হতে পারে।

পরামর্শ দিয়েছেন—ডা. শারমিন আব্বাসি

সহযোগী অধ্যাপক, স্ত্রীরোগ ও প্রসূতিবিদ্যা বিভাগ, আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতাল, ঢাকা।

চোখ

* ২০১৮ সালের জুলাইয়ের দিকে আমার দৃষ্টিশক্তি কমছে বুঝতে পারলাম। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চশমা নিলাম সেপ্টেম্বর মাসে। দুই চোখই মাইনাস .৫। চশমা পরলে স্বস্তি পাই। খুললেই অস্বস্তি বোধ হয়, মনে হয় ঝাপসা দেখছি। বাসায় থাকার সময়ও একটু খুলে রাখলেই এমন হয়। কোনো ড্রপ ব্যবহার করলে কি উপকার পাওয়া যাবে? কিংবা দৃষ্টিশক্তির উন্নতি হবে?

আহমেদ সুমন

ঢাকা

পরামর্শ: চোখে পাওয়ায়ের সমস্যায় চশমাই সমাধান। চশমার কাজ ওষুধে হবে না, চশমাই পরতে হবে। আরেকটি বিকল্প হলো কনটাক্ট লেন্স বা ক্ষেত্রবিশেষে ল্যাসিক। সে জন্য ভালো চক্ষু বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে হবে। মাইনাস .৫ কম পাওয়ার—এর জন্য চশমা পরাই ভালো। তাতে স্বস্তি বোধ করবেন।

পরামর্শ দিয়েছেন—ডা. সালমা পারভিন

সহযোগী অধ্যাপক, চক্ষু বিভাগ, গ্রিন লাইফ মেডিকেল কলেজ, ঢাকা

জ্বরজারি

* আমার মেয়ের বয়স ১৮ বছর। জ্বর হওয়ায় তাকে ‘প্যারাসিটামল ৫০০’ ট্যাবলেট খাইয়েছি। ট্যাবলেট খেলে জ্বর থাকে না। দিনে না থাকলেও রাতে জ্বর আসে। কয়েকবার আইইডিসিআরের হেল্পলাইনে ফোন করেছি। কিন্তু কথা বলতে পারিনি। জ্বর না ছাড়ায় ‘প্যারাসিটামল ৬৬৫’ খাইয়েছি। জ্বর ছাড়া অন্য কোনো উপসর্গ নেই।

রোকেয়া বেগম

মোহাম্মদপুর, ঢাকা।

পরামর্শ: এ সময় জ্বর থাকলে অবশ্যই কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা উচিত। কারণ, সব রকমের উপসর্গ সবার না–ও থাকতে পারে। প্যারাসিটামলের সঙ্গে গরম ভাপ নেওয়া, আদা–চা পান করা, জিংক ও ভিটামিন-ডি, প্রচুর ভিটামিন-সি যুক্ত ফলমূল খেতে থাকুন। আর দ্রুত আপনার কাছের বুথ বা সেন্টারে করোনাভাইরাসের জন্য নমুনা দিয়ে দিন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সিরিয়াল নিতে পারেন পরীক্ষার জন্য।

পরামর্শ দিয়েছেন—ডা. আ ফ ম হেলালউদ্দিন

মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ, ঢাকা।

মনোরোগ

* আমি নবম শ্রেণির ছাত্রী। সারা দিন তাপমাত্রা স্বাভাবিক থাকলেও রাতে ঘুমাতে গেলে আমার হাত-পায়ের তাপমাত্রা অত্যধিক বেশি হয়ে ওঠে। পাশাপাশি অনেকটা জ্বালাপোড়াও করে। এ কারণে আমার রাতে ঘুমাতে অনেক অসুবিধা হয়ে থাকে। এ সমস্যার সমাধান কী?

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

বাগেরহাট।

পরামর্শ: হাইপারথায়রয়েডিজম, নিউরোপ্যাথি, রেস্টলেস লেগ বা সোমাটিক সিম্পটম ডিস–অর্ডার থেকে এমনটা হতে পারে। মানসিক চাপ মুক্ত থাকতে হবে। দিনের বেলা বিছানায় শোয়া যাবে না। ঘুমের দুই ঘণ্টা আগে থেকে মুঠোফোন, ল্যাপটপ, টিভি দেখা বন্ধ রাখুন। পড়াশোনা বা অন্য বিষয় নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকলে ভাগ ভাগ করে পড়ুন। দিনের বেলা হালকা ব্যায়াম করুন। শ্বাসের ব্যায়াম করতে পারেন। পর্যাপ্ত পানি পান করুন। ঘুমানোর আগে বই পড়ার চেষ্টা করুন বা মৃদুলয়ের গান শুনুন। প্রয়োজন হলে নিকটস্থ চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন।

পরামর্শ দিয়েছেন—ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ

মনোরোগ বিশেষজ্ঞ, সহযোগী অধ্যাপক, জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল, ঢাকা।

প্রশ্ন পাঠানোর ঠিকানা

স্বাস্থ্য জিজ্ঞাসা

ই-মেইল: proshastho@prothoma*o.com

ফেসবুক পেজ: fb.com/ProShastho/

ডাকযোগে: প্র স্বাস্থ্য, প্রথম আলো, ১৯ কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন