গোসলের বেলায় প্রত্যেকে চলেন নিজের নিয়মে। কেউ শুরু করেন চুল ধোয়া দিয়ে, কারও শুরু হয়তো পা পরিষ্কারের মধ্য দিয়ে। অধিকাংশই আবার গোসলে নিয়ম করে মুখ পরিষ্কার করেন। ব্যবহার করেন ফেসওয়াশ। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটা ত্বকের জন্য ক্ষতিকর!

এর প্রধান কারণ, গোসলের সময় আমরা অনেক সময় একটু গরম পানি ব্যবহার করি, বিশেষ করে শীতের দিনে। এ ছাড়া সারা দিনের জমে থাকা ক্লান্তির পর হালকা গরম পানিতে গোসল করে নিলে শরীরটা বেশ চাঙাও লাগে। কিন্তু ক্ষতি হয় এতেই। গরম পানি ত্বকের প্রাকৃতিক তেল ধুয়েমুছে নিয়ে যায়। পানি যতটা গরম হবে, ত্বক হবে আরও শুষ্ক। আর অতিরিক্ত গরম পানি ত্বকে অনাকাঙ্ক্ষিত দাগেরও সৃষ্টি করে। মুখ মেছতা, ব্রণ বা এ–জাতীয় কোনো উপসর্গ থাকলে তো অতিরিক্ত গরম পানি মানে অতিরিক্ত বিপদ।

কেবল গরম পানিই নয়, দীর্ঘ সময় ধরে গোসল করাও কাজের কথা নয়। এতেও ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তাই গরম পানিতে দীর্ঘক্ষণ গোসল করলে অবধারিতভাবেই ত্বক হয়ে ওঠে আরও নাজুক। এ কারণেই গোসলের সময় ফেসওয়াশ ব্যবহারের বেলায় সতর্ক হতে বলেন বিশেষজ্ঞরা। গোসলের মধ্যে ফেসওয়াশ মাখতে শুরু করলে বেশ খানিকটা সময় কেটে যায়। একই কাজ অন্য একটা সময়ে করলে গোসলের সময় আসে কমে।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, গোসল করা উচিত ৫–১০ মিনিটের মধ্যে। দিনে অন্তত একবার, খুব গরম পড়লে দুইবারেও নিষেধ নেই। গোসলে মুখ পরিষ্কার করার সময় শাওয়ারের দিকে মুখ না করে পিঠ পেতে দিন। এ সময় কুসুম কুসুম গরম পানিতেও কোনো ঝুঁকি থাকে না। আর এ সময়ই মুখটা পরিষ্কার করে নিন ভালোভাবে। শরীর ডলতে অনেকেই গা–মাজুনি ব্যবহার করেন। এটার ক্ষেত্রেও বিশেষজ্ঞদের কঠিন নিষেধাজ্ঞা আছে।

গ্রন্থনা: মাহফুজ রহমান, সূত্র: রিডার্স ডাইজেস্ট

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন