default-image

বিশ্বে প্রতি ১০ জনে একজন এখন ডায়াবেটিসে আক্রান্ত। এটি যেহেতু জীবনব্যাপী রোগ, তাই একে সঙ্গে নিয়েই ভালো থাকতে হবে। সুশৃঙ্খল জীবনাচরণ, সুষম খাদ্যাভ্যাস, নিয়মিত ব্যায়াম আর নিজের শরীরের খুঁটিনাটির দিকে নজর রাখা—এই হলো ডায়াবেটিস নিয়ে ভালো থাকার মূলমন্ত্র। আসুন দেখি একজন ডায়াবেটিস রোগীর আদর্শ একটি দিন বা ২৪ ঘণ্টা কেমন হওয়া উচিত।

ভোর: চেষ্টা করুন সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠতে। অনেকেই ভোরে উঠে হাঁটতে বা মর্নিং ওয়াক করতে চলে যান। তাঁদের উচিত হবে এর আগে হালকা কিছু, যেমন দুটো সুগার ফ্রি বিস্কুট বা এক মুঠো মুড়ি বা একটা খেজুর খেয়ে বের হওয়া। যাঁরা বিকেলে হাঁটবেন, তাঁরা ঘুম থেকে উঠে খালি পেটের সুগারটা মেপে নিন—সপ্তাহে অন্তত এক বা দুই দিন তো অবশ্যই। এই সুগার ৬ থেকে ৭ এর মধ্যে হলে খুব ভালো। এবার নাশতার আগের ওষুধ বা ইনসুলিন নিয়ে নিন। বেশির ভাগ ডায়াবেটিসের ওষুধ বা ইনসুলিন নাশতার ১৫ থেকে ৩০ মিনিট আগে নেওয়ার কথা। নাশতা না করে কখনোই বের হবেন না, অবশ্যই খেতে হবে।

মধ্যদুপুর: অফিসে বসে কাজের ফাঁকে মাঝেমধ্যে উঠবেন, হেঁটে এদিক-ওদিক যাবেন। টানা দুই ঘণ্টা বসার পর একটু চলাফেরার চেষ্টা করবেন। ১১টা থেকে ১২টার মধ্যে হাত ধুয়ে সঙ্গে আনা ফল বা ফলের সালাদ খেয়ে নেবেন। পানি পান করবেন পর্যাপ্ত।

দুপুর: দুপুরের ওষুধ বা ইনসুলিন নিয়ে নিন সময়মতো। লাঞ্চটা দুইটার মধ্যে সেরে ফেলার চেষ্টা করবেন। লাঞ্চে ভাত বা রুটি, সঙ্গে সবজি, ডাল, মাছ বা মাংস অন্তত দুই টুকরা।

বিজ্ঞাপন

বিকেল: বিকেল পাঁচটা বেজে গেলে বিস্কুট, বাদাম, মুড়ি, পপকর্ন ইত্যাদি খেতে পারেন অফিসে বসে। কাজ গুছিয়ে নিয়ে বেরিয়ে পড়ুন। যাঁরা বিকেলে হাঁটেন, তাঁরা বাড়ি ফিরে হাঁটতে চলে যান। ভোর বা বিকেল—দৈনিক ৩০ মিনিট হাঁটতে হবে। হাঁটার সময় ৫ মিনিট ওয়ার্মআপ, ২০ মিনিট স্ট্রেচিং বা দ্রুত হাঁটা আর ৫ মিনিট কুলডাউন—এই রীতি মেনে হাঁটবেন।

সন্ধ্যা: বাড়ি ফিরে গোসল করার সময় বা পরে ভালো করে নিজের পা দুটো পরীক্ষা করুন। পায়ের ত্বকে যেকোনো রং পরিবর্তন, ফোসকা, ইনজুরি, কর্ন বা অস্বাভাবিকতা হলে পরামর্শ নিতে হবে। ডিনারের আগের সুগার দেখে নিতে পারেন এবার।

রাত: সন্ধ্যার পর তেমন ভারী কিছু না খেয়ে একবারে সাত-আটটার মধ্যে ডিনার সেরে ফেলাই ভালো। ডিনারের আগের ইনসুলিন বা ওষুধ ভুলবেন না। ডিনারে রুটি, সবজি, ডাল, মাছ বা মাংস রাখুন। ডিনারের পর কিছুটা সময় স্ট্রেস ফ্রি রাখার চেষ্টা করুন।

ঘুমানোর আগে: ঘুমানোর আগে বেড টাইম স্ন্যাকস খেতে হবে। এক কাপ দুধ বা টক দই হতে পারে এই খাবার। অনেকের বেড টাইম ব্যাসাল ইনসুলিন নেওয়ার ব্যাপার থাকে, সেটা এবার নিয়ে নিন। রাতে অন্তত ছয়-সাত ঘণ্টা ঘুম দরকার।

মন্তব্য পড়ুন 0