default-image

বইমেলায় বইয়ের কাটতি বাড়াতে লেখক-প্রকাশকেরা কত কিছুই না করেন! বইয়ের কাটতি বাড়াতে আরও কী কী করা যায়, সেটাই ভেবে দেখেছি আমরা।

নিরাপত্তা প্রদান
আজকাল পানির ট্যাংকেও কয়েক স্তরবিশিষ্ট নিরাপত্তাবেষ্টনী থাকে। অথচ এখন মানুষের জীবনেরই নিরাপত্তা নেই! তাই বই কিনলে রাস্তাঘাটে পেট্রলবোমার আঘাত থেকে গ্যারান্টিসহ নিরাপত্তা দেওয়া হবে—এমন ঘোষণা দিলে রাতারাতি বই বিক্রির পরিমাণ বেড়ে যাবে চক্রবৃদ্ধি হারে!

default-image


একই বইয়ে অনেক মলাট
অনেক পাঠকই আছেন, যাঁরা বই কিনে ঘরের শোভা বাড়ান। তাই পাঠকের ঘরের অন্যান্য আসবাবের রঙের সঙ্গে বইয়ের মলাটের রং মেলাতে একই বইয়ের বিভিন্ন রঙের মলাট করা যেতে পারে। এতে বিক্রির পরিমাণ বাড়তে কতক্ষণ!
ফেসবুক লাইক–কমেন্ট ফ্রি
সেলিব্রিটি হতে কে না চায়! আর এ যুগে সবার সেরা সেলিব্রিটি সে–ই, যার ফেসবুকে আছে অযুত–নিযুত লাইক–কমেন্ট। এই লাইক–কমেন্ট পোষা ছাগলকেও সেলিব্রিটি বানিয়ে দেয় নিমেষেই। প্রতিটি বইয়ের সঙ্গে নির্দিষ্ট পরিমাণ লাইক–কমেন্ট ফ্রি দিলেই আর পেছনে ফিরে তাকাতে হবে না লেখক কিংবা প্রকাশককে।

default-image

বক্তৃতা–প্রুফ ইয়ারফোন প্রদান
আজকাল রাজনীতিবিদেরা এমন সব পাগলাটে–মার্কা কথা বলেন যে তা কানে এলেই মগজের পারদ চড়াং করে কেওক্রাডংয়ে উঠে যায়! প্রতিটি বইয়ের সঙ্গে যদি এমন বিশেষ ধাঁচের ইয়ারফোন দেওয়া যায়, যেটা শুধু রাজনীতিবিদদের কথা কানে ঢুকতে দেবে না, তবে নিশ্চিত সেই বইটা হবে বেস্ট সেলার!

default-image

টকটাইম, এসএমএস কিংবা মেগাবাইট ফ্রি
আজকাল তরুণ প্রজন্ম সব থেকে বেশি ফ্রি সুবিধা চায় টকটাইম, এসএমএস আর ইন্টারনেটের মেগাবাইটে। প্রতিটি বইয়ের সঙ্গে নির্দিষ্ট পরিমাণ টকটাইম, এসএমএস কিংবা মেগাবাইট ফ্রি দিলে তরুণ প্রজন্ম বই কিনতে হামলে পড়বে নিশ্চিত!

বিজ্ঞাপন
জীবনযাপন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন