সিলেটে সাইক্লিস্টদের ঐক্য

বিজ্ঞাপন
default-image

শখের বশে সাইক্লিং শুরু করেছিলেন যাঁরা, তাঁরাই একদিন ফেসবুকে এককাট্টা হলেন, গড়ে তুললেন সংগঠন। নাম ‘সিলেট সাইক্লিং কমিউনিটি’। এটা ২০১৩ সালের ২৬ অক্টোবরের কথা। আসছে ২৬ অক্টোবর প্রতিষ্ঠার ছয় বছর উদ্​যাপন প্রস্তুতি নিচ্ছে সংগঠনটির। এই ছয় বছরে তাদের সদস্যসংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ হাজারে। আছেন নারী সাইক্লিস্টও। ফেসবুকে সংগঠনের ফেসবুকে গ্রুপের সদস্যসংখ্যা ৩০ হাজারের বেশি। 

সাংগঠনিক কাজের জন্য বছর বছর ‘মডারেটর’ নির্বাচন করা হয়। এ বছর মডারেটরের দায়িত্বে আছেন হরকাতুল জান্নাত। 

ঐতিহ্য রক্ষায় সাইকেলবন্ধন 

সিলেট সাইক্লিং কমিটিউনিটির সদস্যরা প্রতিবাদ কর্মসূচিতেও একাত্ম হন। এই যেমন নগরের আবুসিনা ছাত্রাবাস নামের দুই শতাধিক বছর আগের স্থাপনা রক্ষায়ও ছিল প্রতিবাদী পদক্ষেপ। অনেক সংগঠনের মতো ঐতিহ্য রক্ষার দাবিতে সংহতি জানিয়ে গত বছরের ৩ মার্চ সংগঠনের সদস্যরা ‘সাইকেলবন্ধন’ পালন করেন। 

শুধু প্রতিবাদ বা সংহতিতে নয়, সামাজিক সচেতনতায়ও সাইক্লিং সদস্যরা সোচ্চার। সিলেট সাইক্লিং কমিউনিটির প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য আরিফ আখতারুজ্জামান জানান, যাত্রাপথে বিভিন্ন সামাজিক সচেতনতার প্রচারও তাঁরা করছেন। নদীর প্রতি ভালোবাসা, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সংরক্ষণ, পরিবেশ সুরক্ষা—এসবই হয়েছে সাইকেল চালিয়ে চালিয়ে। প্রতিদিন রুটিন করে চলে সাইক্লিং। চলাচলের রুট, চলার পথে সামাজিক দায়িত্বপূর্ণ কোনো কাজ, এসবই নির্ধারিত হয় চলার পথে। সাংগঠনিক পদক্ষেপের খুঁটিনাটিও নির্ধারিত হয় চলার পথে। সিলেট ছাপিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যাত্রাসহ প্রতিবেশী দেশ ভারত ভ্রমণও হয়েছে সিলেট সাইকেল কমিউনিটির।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন