লালমনিরহাটের শেখ কামাল স্টেডিয়ামে রীতিমতো রানের বন্যা বইয়ে দিচ্ছে ১৫ বছরের এক কিশোর। পুল, কভার ড্রাইভ, সুইপ, স্লগ সুইপে বল আছড়ে পড়ছে সীমানার ওপারে! ৫০ ওভারের খেলায় তার রান ৩২৫! তাও আবার মাত্র ১৪২ বলে! আমাদের এবারের সময়ের নায়ক মোস্তাফিজুর রহমান

default-image

ক্রিকেটে তোমার শুরুটা কীভাবে?
২০১০ সালে বড় ভাই লিংকন লালমনিরহাট প্রথম বিভাগ ক্রিকেট খেলতেন। আমি ভাইয়ার প্রতিটি ম্যাচই দেখতাম। সেখান থেকেই আসলে স্বপ্ন দেখতাম, ক্রিকেটার হব। ২০১২ সালে ভাইয়া আমাকে লালমনিরহাট ক্রিকেট একাডেমিতে ভর্তি করিয়ে দিলেন। সেখানে নিয়মিত অনুশীলন শুরু করলাম। এরপর বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে ২০১২ সালে প্রথম ঠাকুরগাঁওয়ে খেলি। আর এখন তো অনূর্ধ্ব-১৫ দলে আছি। এবার লালমনিরহাটে অনূর্ধ্ব-১৬ দলে খেলেছি।
এমন অবিশ্বাস্য একটা ইনিংস কীভাবে সম্ভব?
আমার পরিকল্পনায় ছিল কেবল ৫০ ওভার পুরোটা খেলা। টিম ম্যানেজার বলেছিলেন, উইকেটে থাকলে রান পাব। আমি কেবল উইকেটে থাকতে চেয়েছি। তবে শুরু থেকেই বোলারদের একদম সুযোগ দিইনি, কেবল মেরে খেলেছি। সব সময় রানের চাকা সচল রাখাই ছিল আমার লক্ষ্য।
ইনিংসটা খেলার সময় মাথায় ঠিক কী ভাবনা ছিল?
৬ ফেব্রুয়ারি ট্রিপল সেঞ্চুরির দিনে উইকেটে স্বাভাবিক খেলাটাই খেলতে চেয়েছি। একদম স্নায়ুচাপে ভুগিনি। মারার বল এলেই সোজা সীমানা পার করেছি!
ক্রিকেট নিয়ে তোমার স্বপ্ন কী?
একদিন জাতীয় দলে খেলব, বিশ্বকাপেও খেলতে যাব। ৩০০ রানের একটা ইনিংস জাতীয় দলের হয়েও খেলতে চাই।

বিজ্ঞাপন
জীবনযাপন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন