কুয়েত

কুয়েতে নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত

অবৈধ ভিসা ব্যবসায়ীরা ছাড় পাবেন না

বিজ্ঞাপন
default-image

ভিসা ব্যবসার সঙ্গে জড়িত লোকজনকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে স্পষ্ট করেছেন কুয়েতে নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আশিকুজ্জামান, এনডিসি,এএফডব্লিউসি,পিএসসি,জি।

‘দূতাবাস একটি সেবামূলক প্রতিষ্ঠান, প্রবাসীদের বিভিন্ন সেবা প্রদানে দূতাবাসের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন যেমন অত্যন্ত জরুরি, তেমনি আপনাদের সহযোগিতাও প্রয়োজন’ বলে মন্তব্য করেন নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত। তিনি আশ্বাস দেন, ‘কুয়েতে নিয়োগপ্রাপ্ত হওয়ার পর এ দেশে কর্মরত প্রায় সাড়ে তিন লাখ প্রবাসীর নানা সমস্যার কথা শুনেছি, আপনাদের সব সমস্যা সমাধানে দূতাবাস দায়িত্বশীল হয়ে কাজ করবে।’

দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করছে বাংলাদেশ। তিনি সাফ জানিয়ে দেন, কুয়েতে অবৈধ ভিসা ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে তিনি খড়্গহস্ত থাকবেন। তিনি বলেন, ‘ভিসা ব্যবসা যাঁরা করছেন, তাঁরা অন্য কোনো দেশের নাগরিকদের সঙ্গে করছেন না, বরং ভিসা ব্যবসা করে আমরা আমাদেরই ক্ষতি করছি। অতএব, ভিসা ব্যবসায়ীদের ব্যাপারে কোনো ছাড় নেই, যদি দূতাবাস কাউকে ভিসা ব্যবসার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বলে শনাক্ত করতে সক্ষম হয়, তাহলে তাঁর পাসপোর্ট বাজেয়াপ্ত করে তাঁকে দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কুয়েতে প্রবাসী বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে পরিচিতিমূলক সভায় তিনি এ বিষয়ে তাঁর মনোভাব জানান। সম্প্রতি কুয়েতের বাংলাদেশ দূতাবাসের হলরুমে আয়োজিত এই সভায় উপস্থিত ছিলেন দূতাবাসের কাউন্সিলর ও দূতালয়প্রধান মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান, ডিফেন্স অ্যাটাশে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ আবু নাসের, কাউন্সিলর (ভিসা-পাসপোর্ট) বিভাগ জহিরুল ইসলাম খান, দ্বিতীয় সচিব নিয়াজ মোর্শেদ, সোনালী ব্যাংক প্রতিনিধি মো. জাকির হোসেন মজুমদার, প্রবাসী গণমাধ্যমকর্মী ও কুয়েতে বাংলাদেশি কমিউনিটির সদস্যরা।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন