default-image

বাঙালির রক্তের দামে কেনা স্বাধীনতার সূর্য পূর্ব দিগন্তে উদিত হয়েছিল ১৯৭১ সালে। ২০২১ সালের ২৬ মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনের অর্ধশত বছর পূর্ণ হবে। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পরে বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জন করেছিল। ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে প্রায় পাঁচ লাখ বীরাঙ্গনার সম্মানের বিনিময়ে এবং ৩০ লাখ শহীদের আত্মত্যাগে বাংলাদেশ একটি স্বাধীন দেশ হিসেবে বিশ্ব মানচিত্রে জায়গা করে নেয়।
বাংলাদেশ স্বাধীনতার ৫০তম বার্ষিকী পালনের উদ্দেশ্যে এবং স্বাধীনতাযুদ্ধের শহীদ ও বীরাঙ্গনাদের স্মরণে ব্রিসবেনে স্থানীয় সরকার পর্যায়ে ২২ মার্চ ‘লাইট আপ ব্রিসবেন’ শীর্ষক একটি  ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হবে। এই ইভেন্টে ব্রিসবেনের দুটি ঐতিহাসিক স্থাপত্যের নিদর্শন স্টোরি ব্রিজ ও ভিক্টোরিয়া ব্রিজ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার রঙে—লাল ও সবুজের আলো দিয়ে আলোকিত করা হবে।

default-image

ব্রিসবেন সিটি কাউন্সিলের সহায়তায় বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন ব্রিসবেন ইনক (ব্যাব) প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়াতে এ রকম কোনো অনুষ্ঠানের আয়োজন হতে যাচ্ছে। ড. যীশু দাসগুপ্ত (এমএলসি মুভমেন্ট ইন্টারন্যাশনাল ইনক, ব্রিসবেন চ্যাপ্টার লিড), মুনির রহমান (সভাপতি, ব্যাব), মো. মাসুদ ইফতেখারুল আলম (সহসভাপতি, ব্যাব) এবং ব্যাবের অন্যান্য নির্বাহী সদস্য রোমেন ইসলাম, জাহাঙ্গীর হোসেন, তাহসিন আলী, নিপু খান ও ফারজানা জাহানের তত্ত্বাবধানে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

ড. যীশু দাসগুপ্ত বলেন, ‘প্রবাসে থেকে নিজের দেশের পতাকাকে যেকোনোভাবে তুলে ধরতে পারাটা আমার এবং সব বাংলাদেশির জন্য একটি উত্তেজনাকর মুহূর্ত। আমরা মনে করি, আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম এবং ভিনদেশি মানুষের কাছে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ অর্থ বহন করবে।’

এ ছাড়া ব্রিসবেনে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর আয়োজনের পূর্ণতা দিতে ওই দিন ব্যাবের পক্ষ থেকে ব্রিসবেন কাউন্সিলের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা হস্তান্তর করা হবে। ২৬ মার্চ প্রথম প্রহরে ব্রিসবেন সিটি হলে বাংলাদেশ জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। আয়োজকদের প্রত্যাশা, এই অনুষ্ঠানগুলো ব্রিসবেনে বসবাসরত নতুন প্রজন্মের বাংলাদেশিদের ও অন্যান্য সম্প্রদায়কে বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধের ইতিহাস জানাতে উৎসাহিত করবে।

বাংলাদেশ স্বাধীনতার ৫০তম বার্ষিকী উদ্‌যাপন শুরু হয়েছে ১৩ মার্চ ব্যাব স্বাধীনতা কাপ টেপ টেনিস ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আয়োজনের মাধ্যমে। এই ক্রিকেট টুর্নামেন্টে, ব্রিসবেনে বসবাসরত বাংলাদেশি সম্প্রদায়ের সব সদস্য সক্রিয়ভাবে অংশ নিচ্ছেন। এ ছাড়া ২০ মার্চ একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই গৌরবময় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অস্ট্রেলিয়ার অন্য সব সম্প্রদায়ের কাছে আমাদের সংস্কৃতি এবং ইতিহাস তুলে ধরা হবে। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি কুইন স্ট্রিট মল স্টেজে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

দূর পরবাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন