default-image

বাংলাদেশের মতো জার্মানিতেও আনন্দঘন পরিবেশ ও যথাযথ মর্যাদায় মধ্য দিয়ে পালন করা হয়েছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস। দেশটির বাংলাদেশ দূতাবাস রাজধানী বার্লিনে ১৭ মার্চ রোববার এ উপলক্ষে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে শিশুদের জন্য চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ছাড়াও ছিল আলোচনা সভা, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, জন্মদিনের কেক কাটা এবং দেশ ও সবার জন্য দোয়া কামনাসহ নানা কর্মসূচি।

default-image

আলোচনা সভায় দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহমেদ ছাড়াও আরও কয়েকজন সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন। তাঁরা বলেন, ‘আজকের শিশুরাই দেশ ও জাতির ভবিষ্যৎ। তাই প্রত্যেক বাবা-মায়ের উচিত সন্তানকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ধর্মবর্ণের ঊর্ধ্বে উঠে অসাম্প্রদায়িক সংস্কৃতিকে বুকে লালন করে জাতির জনকের আদর্শে সুশিক্ষিত করে তোলা। আর এই শিশুদের মাঝেই আমরা পাব দেশের ভবিষ্যৎ নেতা।’

default-image

এর আগে রাষ্ট্রদূতের নেতৃত্বে দূতাবাসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। এ ছাড়া আওয়ামী লীগের জার্মান, বার্লিন শাখার নেতা-কর্মীসহ সর্বস্তরের প্রবাসী বাংলাদেশিরাও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। পরে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী শিশুদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

default-image
বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন