default-image

কোভিড মহামারি সফলভাবে মোকাবিলার জন্য আবারও বাংলাদেশ সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করলেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস।

তিনি কোভিড নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশের সাফল্য বিশ্বে একটি অনন্য দৃষ্টান্ত বলে অবহিত করেন। আজ বুধবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালকের সঙ্গে জেনেভার বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মো. মোস্তাফিজুর রহমান সৌজন্য সাক্ষাৎকালে তিনি এসব বলেন।

রাষ্ট্রদূত মো. মোস্তাফিজুর রহমান কোভিড মোকাবিলায় বাংলাদেশের গৃহীত পদক্ষেপগুলো মহাপরিচালককে অবহিত করেন। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ‘Whole-of-the-Government’ এপ্রোচের মাধমে সমন্বিত পদক্ষেপগুলোর বিস্তারিত ব্যাখ্যা করেন। এ ছাড়া স্বাস্থ্য খাতের অন্যান্য সাফল্য এবং সরকারের সর্বজনীন স্বাস্থ্যব্যবস্থা অর্জনের অঙ্গীকারের কথা পুনর্ব্যক্ত করেন। বিশেষ করে তিনি কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে জনগণের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেওয়ার বিষয়টি মহাপরিচালককে অবহিত করেন। রাষ্ট্রদূত মানসিক স্বাস্থ্য, অটিজম, বুদ্ধি ও স্নায়ুবিক প্রতিবন্ধিদেরও স্বাস্থ্যসেবার মূল ধারায় সম্পৃক্ত করার কথা তুলে ধরেন।

বিজ্ঞাপন

রাষ্ট্রদূত চলমান কোভিড-১৯ মোকাবিলায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কার্যকর ভূমিকা, বিশেষ করে উন্নয়নশীল দেশগুলোতে কোভিড প্রতিরোধের লক্ষ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপের জন্য মহাপরিচালককে ধন্যবাদ জানান। এ ছাড়া কোভ্যাক্স ফেসিলিটির আওতায় সদস্যরাষ্ট্রগুলোতে করোনাভাইরাসের টিকা দ্রুত সরবরাহে দৃশ্যমান ও বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখতে তাঁকে অনুরোধ জানান।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক বাংলাদেশের স্বাস্থ্য কাঠামোর সম্প্রসারণ ও স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়নে সন্তোষ প্রকাশ করেন। এ ক্ষেত্রে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সমর্থন ও সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে রাষ্ট্রদূতকে আশ্বস্ত করেন। বিজ্ঞপ্তি

দূর পরবাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন