বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রোববার স্থানীয় সময় সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৬টা পর্যন্ত ব্যাপক উৎসাহের মধ্য দিয়ে ভোট গ্রহণ চলে। জার্মানির ফেডারেল নির্বাচনে একজন ভোটার দুটি করে ভোট দিতে পারেন—একটি প্রার্থীকে, অন্যটি সরাসরি রাজনৈতিক দলকে। আঙ্গেলা ম্যার্কেলের দীর্ঘ ১৬ বছরের ঐতিহাসিক শাসনামলের পর এই নির্বাচনের মাধ্যমে নতুন চ্যান্সেলর পেতে যাচ্ছে জার্মানি।

অবশ্যই নির্বাচনের অনেক আগেই তিনি এবারে চ্যান্সেলর পদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না বলে ঘোষণা দেন। এবারের নির্বাচনে তাঁর দল হারলেও তিনি সব জার্মান নাগরিকের মধ্যমণি। দেশটির সবাই মনে করছে, তাঁর শাসনামল হলো জার্মানির স্বর্ণযুগ।

দীর্ঘ ১৬ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা সিপিডির পরাজয়ের কারণ হিসেবে অনেকে দেখছেন, দীর্ঘদিন ধরে ক্ষমতায় থাকায় মানুষ নতুনত্বের জন্য এসপিডিকে ভোট দেন। অন্যদিকে এসপিডির অভিবাসন নীতি, জলবায়ু মোকাবিলা, অধিক কর্মসংস্থান সৃষ্টি, বেতন-ভাতা বৃদ্ধি, সামাজিক নিরাপত্তাসহ অন্যান্য নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি সাধারণ নাগরিকদের দৃষ্টি কেড়ে নেয়।

দূর পরবাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন