default-image

কানাডার টরন্টো শহরে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী ধর্মীয় দাতব্য প্রতিষ্ঠান টরন্টো দুর্গাবাড়ীর বার্ষিক সাধারণ সভা–২০২০ সম্পন্ন হয়েছে। ৪ এপ্রিল দুপুর ১২টায় ভার্চ্যুয়ালি এ আয়োজন হয়। প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা, সদস্যদের পাশাপাশি আলোচনায় অংশ নেন সমাজের নানা পেশাজীবী মানুষ।

প্রতিষ্ঠানের প্রধান পুরোহিত কঙ্কণ ভট্টাচার্যের প্রার্থনার মাধ্যমে সাধারণ সভা শুরু হয়। বার্ষিক সাধারণ সভায় সভাপতিত্ব করেন দুর্গাবাড়ির সভাপতি সুদীপ দে। সভা সঞ্চালন করেন টরন্টো দুর্গাবাড়ির অন্যতম পরিচালক ড. সুশীতল চৌধুরী।

গত বছরে টরন্টো দুর্গাবাড়ির সব কার্যক্রমের তথ্য নিয়ে বার্ষিক পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন তুলে ধরেন প্রতিষ্ঠানের সাধারণ সম্পাদক ড. হীরালাল পাল। তাঁর উপস্থাপিত প্রতিবেদনে উঠে আসে করোনা অতিমারির সময় প্রাদেশিক সরকার কর্তৃক আরোপিত সব বিধিনিষেধ মেনে দর্শনার্থীদের জন্য সশরীরে এবং ভার্চ্যুয়াল–সুবিধাসহ সর্বজনীন দুর্গোৎসব উদ্‌যাপন, শ্যামাপূজায় গ্লোবাল ফান্ড রাইজিং ক্যাম্পেইন ডোনেটে ডলার আয়োজন। টরন্টো দুর্গাবাড়ি ফিউনারেল সার্ভিস উদ্যোগ, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে মাস্ক বিতরণসহ সচেতনতা বৃদ্ধিতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভিডিও নির্মাণসহ প্রতিষ্ঠানের শিশু-কিশোর, তরুণদের নিয়ে ভার্চ্যুয়াল আয়োজন।

বিজ্ঞাপন

সাধারণ সম্পাদকের প্রতিবেদনের পরপর প্রতিষ্ঠানের বার্ষিক আয়–ব্যয়ের হিসাব তুলে ধরেন প্রতিষ্ঠানের নিয়োজিত হিসাবরক্ষক গৌতম সরকার।

প্রশ্ন–উত্তর পর্বে গত বছরে দুর্গাবাড়ির নানা পদক্ষেপ ও সামনে নানা উদ্যোগ নিয়ে পরামর্শমূলক আলোচনা করেন পেশাজীবীরা। আলোচনায় অংশ নেন মিটন পারিয়াল, শান দে, দেবাশীষ চক্রবর্তী, সনৎ দাস, সুকোমল রায়, মৈনাক সেন, ঝুটন তরফদার, সুদীপ সোম, আশীষ পাল, বিজয় রায়, হিমাদ্রি রয়, শিবু চৌধুরী, তাপস রায়, জিতেন্দ্র দাস, প্রাণেশ দাস, মৌটুসী চৌধুরী, সুবর্ণ চৌধুরী প্রমুখ। ভার্চ্যুয়াল আয়োজনের প্রযুক্তিগত দিক পরিচালনা করেন সুমিত চক্রবর্তী।

টরন্টো দুর্গাবাড়ির সাধারণ সম্পাদক ড. হীরালাল পাল সাধারণ সভাপরবর্তী প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘বিগত বছর এবং চলমান করোনার এই বৈরী সময়ে মানুষের অভাবনীয় সাড়া আমাদের মুগ্ধ করেছে। আশা করছি, সামনের দিনগুলোয় সবার সাহায্য নিয়ে প্রতিষ্ঠানের প্রযুক্তিগত সক্ষমতা বৃদ্ধিসহ নতুন প্রজন্মকে সম্পৃক্ত করে নানামুখী উদ্যোগ আমরা পরিচালনা করতে পারব।’

দূর পরবাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন