default-image

নাইজেরিয়ায় যথাযোগ্য মর্যাদা ও উদ্দীপনার সঙ্গে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদ্‌যাপন করেছে দেশটির বাংলাদেশ হাইকমিশন। ১৭ মার্চ রোববার কর্মসূচির প্রথম পর্বে রাজধানী আবুজার সিটি অব রিফিউজি অরফানেজে বিকেলে দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. শামীম আহসান মিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও কমিউনিটির সদস্যদের নিয়ে অনাথ শিশুদের সঙ্গে কিছু সময় অতিবাহিত এবং তাদের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের কেক কাটেন। এরপর তিনি কেন্দ্রের প্রশাসকের কাছে শিশু এতিমদের জন্য খাদ্যদ্রব্য ও উপহার সামগ্রী হস্তান্তর করেন। এ সময় এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। হাইকমিশনার উপস্থিত সবার কাছে শিশুদের প্রতি বঙ্গবন্ধুর অকৃত্রিম ভালোবাসার কথা তুলে ধরেন।

default-image

সন্ধ্যায় হাইকমিশন মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্যদানের মাধ্যমে শুরু হয় দ্বিতীয় পর্ব। অন্য কর্মকাণ্ডের মধ্যে ছিল প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী, রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ, আলোচনা সভা, কবিতা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাত।

default-image

শৈশব থেকেই শিশুদের প্রতি বঙ্গবন্ধুর দৃশ্যমান অকৃত্রিম ভালোবাসা পরিণত বয়সে তা মহান নেতার রাজনৈতিক দর্শন মানুষের প্রতি ভালোবাসার মধ্য দিয়ে কীভাবে প্রতিফলিত হয়, তার ওপর হাইকমিশনার মো. শামীম আহসান আলোকপাত করেন। তিনি এ প্রসঙ্গে শিশুদের কল্যাণে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক গৃহীত কর্মকাণ্ডের কথা উল্লেখ করেন। অন্য বক্তারাও জাতির পিতার বর্ণাঢ্য জীবনের ওপর আলোকপাত করেন।

default-image

জাতির পিতার জন্মদিন উপলক্ষে অডিটরিয়ামটি উৎসবের সাজে সাজানো হয়। বেলুন, রকমারি রঙিন পোস্টার, প্রতিকৃতি প্রভৃতি দিয়ে আকর্ষণীয়ভাবে সাজানো হলটিতে প্রবাসে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন একটি আনন্দঘন আবহ তৈরি করে।

আবুজার সুশীল সমাজের সদস্য, বাংলাদেশ কমিউনিটির নেতা, তাদের শিশুসন্তান, মিশনের সদস্য ও তাঁদের পরিবারের সদস্যরা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। বিজ্ঞপ্তি

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন