default-image

সর্বস্তরের প্রবাসীর অংশগ্রহণে যথাযথ মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে গ্রিসের রাজধানী এথেন্সে গণহত্যা দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল ২৫ মার্চ বাংলাদেশ দূতাবাস বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করে।

দূতাবাস প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত কর্মসূচির শুরুতে মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণী পড়া হয়। পরে ১৯৭১ সালের গণহত্যার ওপর প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

গণহত্যা দিবসের ওপর বিশেষ আলোচনায় প্রবাসী বাংলাদেশিরা ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধকালে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর বর্বরোচিত হত্যাযজ্ঞের নিন্দা জানিয়ে এই দিনকে গণহত্যা দিবস হিসেবে ঘোষণার জন্য সরকারকে ধন্যবাদ জানান। তাঁরা বিশ্ববাসীকে এ গণহত্যার বিষয়ে অবহিত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. জসীম উদ্দিন গণহত্যা দিবসে প্রবাসীদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলার স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একযোগে দেশ গড়ার কাজে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তিনি স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে অবদান রাখার মাধ্যমে ৩০ লাখ শহীদের ঋণ পরিশোধেরও অনুরোধ জানান।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন গ্রিসসহ বাংলাদেশি বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা ও সর্বস্তরের প্রবাসী বাংলাদেশিরা উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি

বিজ্ঞাপন
দূর পরবাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন