default-image

প্যারিসে ইউনেসকো ও বাংলাদেশ দূতাবাস যৌথভাবে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করেছে। জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতিবিষয়ক সংস্থা ইউনেসকো টানা ১৫ বছর ধরে পালন করছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। এ বছর জাতিসংঘের ভাষা দিবসের থিম ছিল ভাষার সঙ্গে ও মাধ্যমে ‘ইনক্লুসিভ’ শিক্ষা। এ উপলক্ষে ২০ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাতটায় ইউনেসকোর সদর দপ্তরে ১৯৫২ সালের ভাষা শহীদদের স্মরণে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য দেন ইউনেসকোতে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলাম ও ইউনেসকোর সহকারী পরিচালক আলফ্রেড পেড়ে। তাঁরা ভাষা শহীদদের গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে বলেন, পৃথিবীতে বাংলাই একমাত্র ভাষা যে ভাষায় কথা বলার জন্য বাঙালিরা নিজের জীবন বিসর্জন দিয়েছে। এ সময় সালাম, রফিক, জব্বার, বরকতসহ ভাষা শহীদদের ছবি প্রদর্শন করা হয়। সভা শেষে বাংলাদেশ থেকে আগত শিল্পীদের পরিবেশনায় রবীন্দ্র ও নজরুলসংগীত পরিবেশিত হয়।

default-image

আলোচনা অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রধান সচিব ফারজানা রহমান৷
জাতিসংঘের শিক্ষা ও সংস্কৃতি সংগঠন ইউনেসকো ১৯৯৯ সালের নভেম্বর মাসে প্রতিবছর একুশে ফেব্রুয়ারি দিনটিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন করার সিদ্ধান্ত নেয়।

বিজ্ঞাপন
দূর পরবাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন