default-image

আমাদের মুক্তিযুদ্ধের প্রধান কান্ডারি, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে আনন্দধারা আর্টস আয়োজন করেছে ‘বঙ্গবন্ধু ও রবীন্দ্রনাথ’ শীর্ষক অনলাইন লাইভ ‘ওই পোহাইলো তিমির রাতি’। অনলাইনে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে এই ব্যতিক্রমধর্মী আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর মননভূমি ও স্বদেশ ভাবনায় রবীন্দ্রনাথের প্রভাব এবং বঙ্গবন্ধুর অসাম্প্রদায়িক চেতনার কথা বারবার উঠে এসেছে।

হিন্দুর কবি, মুসলমান সংস্কৃতির পরিপন্থী বলে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে যখন পশ্চিম পাকিস্তানি শাষকগোষ্ঠী নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। বাঙালি সংস্কৃতির মূলে আঘাত হানা এই নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে বঙ্গবন্ধুর সোচ্চার কণ্ঠ, লক্ষ কোটি বাঙালির অসাম্প্রদায়িক চেতনারই প্রতিনিধিত্ব করেছে।

এ ফেসবুক লাইভে বঙ্গবন্ধুর ব্যক্তিগত স্মৃতি থেকে উল্লেখযোগ্য কিছু অংশ তুলে ধরে তাঁর সঙ্গে রবীন্দ্রনাথের আত্মিক যোগও আলোচনায় উঠে আসে। প্রাণবন্ত এই আলোচনায় অংশ নেওয়ার ফাঁকে ফাঁকে সংগীত পরিবেশন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মৃত্তিকা সহিতা এবং আনন্দধারা আর্টসের কর্ণধার মূলধারার রবীন্দ্রসংগীতের শিল্পী ড. ইমতিয়াজ আহমেদ।

বিজ্ঞাপন
default-image

এ আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর পছন্দের কিছু রবীন্দ্রসংগীত গাওয়া হয় এবং তাঁর পছন্দের কিছু কবিতার কথাও উল্লেখ করা হয়। বঙ্গবন্ধু যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশে ফিরে যে নতুন দেশ গঠনের প্রাণান্ত চেষ্টায় রত হন, তাতে রবীন্দ্রনাথ তাঁর প্রেরণাশক্তির উৎস হিসেবে কাজ করেছে।

আনন্দধারা আর্টসের প্রাঞ্জল ও গোছানো এ আয়োজনের মূল পরিকল্পনা ও পরিচালনায় ছিলেন বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও সাংবাদিক উদয় শংকর দাশ। এ আয়োজনের মুখ্য সঞ্চালক এবং সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন আনন্দধারা আর্টসের কর্ণধার ইমতিয়াজ আহমেদ। বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে অনলাইনে আয়োজিত অনিন্দ্য সুন্দর এই আয়োজন দর্শক–শ্রোতাদের মধ্যে সাড়া জাগিয়েছে।

দূর পরবাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন