default-image

করোনা উদ্বেগ কাটিয়ে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়ে উঠছে স্পেনের সার্বিক পরিস্থিতি। দীর্ঘ ৯৯ দিন পর গত ২২ জুন পুরোপুরি উঠিয়ে নেওয়া হয়েছে জরুরি অবস্থা। স্বাস্থ্যসুরক্ষা নিশ্চিত করে আবারও সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে খেলাধুলার। মাঠে ফিরছে জনপ্রিয় ফুটবল লিগ লা লিগাসহ সব ধরনের খেলাধুলা।

৩০ জুন স্পেনের পর্যটন নগরী বার্সেলোনার বাংলাদেশ কিংস ক্রিকেট ক্লাব আয়োজন করে দিনব্যাপী সিক্স এ সাইড ক্রিকেট টুর্নামেন্ট এবং পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান। দীর্ঘদিনের লকডাউন শেষে এই খেলায় দর্শক ও ক্রিকেটারদের মধ্যে ছিল ব্যাপক উৎসাহ–উদ্দীপনা। গীষ্মের প্রচণ্ড রোদ উপেক্ষা করে ফুটবলের দেশখ্যাত স্পেনে ক্রিকেট খেলা উপভোগ করতে মাঠে প্রবাসী বাংলাদেশি দর্শকদের ভিড় ছিল লক্ষণীয়। বার্সেলোনার কাম্পো দে মনজুইক মাঠে অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টে ক্লাব সংশ্লিষ্টরা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কমিউনিটি নেতারা।

ইয়ং স্টার ক্লাব, সেভেন স্টার ক্লাব, সানরাইজ ক্লাব এবং বাংলা টাইগার ক্লাব—এই চার টিমের মধ্যে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ খেলায় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরভ অর্জন করে সেভেন স্টার ক্লাব এবং রানার্সআপ হয়েছে ইয়ং স্টার ক্লাব।

বাংলাদেশ কিংস ক্রিকেট ক্লাব সভাপতি আশরাফ হোসেন মামুনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে এবং সাধারণ সম্পাদক ময়েজ উদ্দিন পরিচালনায় মাঠে উপস্থিত হয়ে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ কিংস ক্রিকেট ক্লাবের উপদেষ্টা, বার্সেলোনা চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি এবং কাসা ই কুইনার স্বত্বাধিকারী এইচ এম রাসেল হাওলাদার, সিনিয়র সাংবাদিক নুরুল ওয়াহীদ, স্পেন বাংলা প্রেসক্লাব সদস্য মো. ছালাহ উদ্দিন, ফয়সল আহমদ, এ আর লিটু, আজমল আলী, রিয়াদ হাওলাদার প্রমুখ।

default-image

পরে রাতে শহরের বাংলাদেশি–অধ্যুষিত এলাকায় মধুর ক্যানটিন রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিত পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন এবং রানার্সআপ দলকে পুরস্কৃত করা হয়।
বাংলাদেশ কিংস ক্রিকেট ক্লাব কাতালোনিয়ার সভাপতি আশরাফ হোসেন মামুনের সভাপতিত্বে ও ক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ মির রাজনের পরিচালনায় পুরস্কার বিতরণ ও নৈশভোজ অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টুর্নামেন্টের স্পনসর বার্সেলোনা চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি এবং কাসা ই কুইনার স্বত্বাধিকারী এইচ এম রাসেল হাওলাদার। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাংবাদিক নুরুল ওয়াহীদ, ব্যবসায়ী ও কমিউনিটি নেতা শফিক খান, ভয়েস অব বার্সেলোনার সাধারণ সম্পাদক এ আর লিটু, সহসভাপতি আজমল আলী, কাসা কুইনের পরিচালকর রিয়াদ হাওলাদার, সালাউদ্দিন আহমেদসহ অনুষ্ঠানে বার্সেলোনায় বিভিন্ন ক্রিকেট ক্লাবের খেলোয়াড়সহ বাংলাদেশি বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক নেতারা ও সাংবাদিকেরা উপস্থিত ছিলেন।

default-image

প্রধান অতিথি রাসেল হাওলাদার বলেন, খেলাধুলায় কেউ হারে, কেউ জয়লাভ করে। মূল কথা হলো খেলাধুলায় অংশগ্রহণ করা। তিনি আরও বলেন, খেলাধুলাই পারে যুবসমাজকে অবক্ষয়ের হাত থেকে রক্ষা করতে। খেলাধুলা জীবনকে সুন্দর ও পরিশীলিত করে। খেলোয়াড়দের মধ্যে সৃষ্টি হয় শৃঙ্খলাবোধ, অধ্যবসায়, দায়িত্ববোধ ও কর্তব্যপরায়ণতা। তিনি আয়োজক কমিটিকে এ ধরনের প্রতিযোগিতামূলক খেলা আয়োজন করায় ধন্যবাদ জানান এবং অতীতের মতো ভবিষ্যতে ও তাদের পাশে থাকার দৃয় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

চ্যাম্পিয়ন সেভেন স্টারের পক্ষে মশিউর রহমান এবং রানার্সআপ ইয়ং স্টারের পক্ষে শাকিল আহমেদ পুরস্কার গ্রহণ করেন। খেলায় ম্যান অব দ্য ফাইনাল হন বিজয়ী দলের মসিউর রহমান মোহন (৩০ রান, ২ উইকেট)। বিজয়ী দলের শফিকুর রহমান তিন ম্যাচে ব্যাট হাতে ১১৩ রান এবং বল হাতে ৫ উইকেট ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট নির্বাচিত হন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0