জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন এবং জাতীয় শিশু দিবসে বাংলাদেশ দূতাবাস, হ্যানয়, ভিয়েতনামে যথাযোগ্য মর্যাদা এবং বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে আজ বুধবার উদ্‌যাপন করা হয়। জাতীয় সংগীত পরিবেশন, জাতীয় পতাকা উত্তোলন, রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ, দোয়া ও মোনাজাত এবং আলোচনা সভার আয়োজন করা হয় এ দিনে।

অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন ভিয়েতনামের জাতীয় সংসদের সংসদ সদস্য ও পররাষ্ট্রবিষয়ক স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্য মিজ লি থু হা। এ ছাড়া আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে ভিয়েতনাম পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, ভারতের রাষ্ট্রদূত, শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রদূত, ডিপ্লোমেটিক কোরের সদস্য, ভিয়েতনামের গণমাধ্যম প্রতিনিধি, ব্যবসায়ী প্রতিনিধি, প্রবাসী বাংলাদেশি এবং দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও তাঁদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ভিয়েতনাম জাতীয় সংসদের সদস্য মিজ লি থু হা এবং রাষ্ট্রদূত মিজ সামিনা নাজ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ—ইউনেসকোর ‘মেমোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্ট্রার’-এর ‘বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য’-এর ভিয়েতনামি ভাষায় অনুবাদ সংবলিত একটি পুস্তিকার মোড়ক উন্মোচন করেন।

বিজ্ঞাপন

আলোচনা পর্বে রাষ্ট্রদূত আগত অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে বক্তব্য দেন। বক্তব্যের শুরুতে তিনি বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের ওপর বিশেষ করে মুক্তিযুদ্ধে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবিসংবাদিত নেতৃত্বের কথা সশ্রদ্ধচিত্তে স্মরণ করেন।

তিনি Wall Street Journal-এ বাংলাদেশকে অতি সম্প্রতি ‘Bangladesh, the South Asia’s Economic Bull’ ঘোষণার কথা গর্বভরে স্মরণ করেন। বিজ্ঞপ্তি

দূর পরবাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন