default-image

অতিমারির এ সময়ে সব যখন কার্যত বন্ধ হয়ে গেছে, তখন তথ্যপ্রযুক্তিকে আশ্রয় করে সারা পৃথিবীর এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্ত মিলছে নানা সীমাবদ্ধতা কাটিয়ে। এ সময়ে ফেসবুক লাইভগুলো জনপ্রিয়তা পেতে শুরু, বিশেষ করে শিল্প–সাহিত্য, রাজনীতি, সমাজভাবনা, সংগীতসহ নানা বিষয়কে কেন্দ্র করে। মূলত যুক্তরাজ্যভিত্তিক সাংস্কৃতিক সংগঠন আনন্দধারা আর্টস এ সময়ে বেশ কিছু বিষয় নিয়ে ধারাবাহিক লাইভ আয়োজন করে আসছে প্রায় এক বছর ধরে। সেই ধারাবাহিকতায় তারা এবার আমাদের মুক্তির সংগ্রামের ৫০ বছরের শুরুতে উত্তাল মার্চ মাসকে ঘিরে মাসব্যাপী ‘মার্চ ৭১-অগ্নিগর্ভ দিনপঞ্জি’ শিরোনামে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। মাসজুড়ে শহীদ জননী জাহানারা ইমামের বিখ্যাত ডায়েরি ‘একাত্তরের দিনগুলি’ থেকে পাঠ এবং সেই সঙ্গে সেই সময়ে রোজ ঘটে যাওয়া গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা, সার্বিক পরিস্থিতি এবং ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা সমৃদ্ধ এ আলোচনা দর্শকদের নাড়া দিয়েছে।

মুক্তিযুদ্ধের গান, কবিতা, পাঠ ভিন্নমাত্রা যুক্ত করেছে এ আয়োজনে। এই আলোচনাগুলো কেবল তথ্যবহুল নয়, বরং ব্যক্তিগত পর্যবেক্ষণের স্মৃতিতে উজ্জ্বল। আনন্দধারা আর্টসের মাসব্যাপী এ আয়োজন শ্রোতা–দর্শকদের ব্যক্তিগত জানাকে যেমন সমৃদ্ধ করবে, তেমনি তথ্য–উপাত্তের সহায়ক হিসেবেও আগামী দিনে ভূমিকা রাখবে। আনন্দধারা আর্টসের এ আয়োজনের মূল পরিকল্পক বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক কর্মী ও সাংবাদিক উদয় শংকর দাস এবং সঞ্চালনা ও সার্বিক তত্ত্বাবধানে ড. ইমতিয়াজ আহমেদ। এ আয়োজনগুলো নিয়মিতভাবে নানা আলোচনায় সমৃদ্ধ করেছেন লেখক, সাংবাদিক শিক্ষাবিদ আবুল মোমেন, প্রখ্যাত সাংবাদিক ও লেখক আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরী, শিক্ষাবিদও লেখক গোলাম মোস্তফা, সংগীত পরিবেশন করেছেন প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী চন্দনা মজুমদার এবং মূলধারার রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী ইমতিয়াজ আহমেদ।

বিজ্ঞাপন

অনবদ্য কবিতা পাঠে উজ্জীবিত করেছেন বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক বিশিষ্ট আবৃত্তিশিল্পী রাশেদ হাসান, জাহানারা ইমামের ডায়েরি থেকে পাঠ করেছেন বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও সাংবাদিক উর্মি মাযহার। এ সময়ে উত্তাল মার্চ মাসকে কেন্দ্র করে এত তথ্যবহুল, প্রাঞ্জল আলোচনা এবং অন্যান্য পরিবেশনা চোখে পড়েনি। সেদিক থেকে আনন্দধারা আর্টসের মাসব্যাপী এ আয়োজন ব্যতিক্রম এবং প্রশংসনীয়। ১ মার্চ শুরু হয়ে ১৪ মার্চ পর্যন্ত মোট চারটি পর্ব প্রচারিত হয়েছে এবং এর ধারাবাহিকতা মার্চ মাসজুড়ে চলবে। আনন্দধারা আর্টসের কর্ণধার ড. ইমতিয়াজ আহমেদ ধারাবাহিক এবং ব্যতিক্রমধর্মী আয়োজন নিয়মিত করে সাংস্কৃতিক জগতে অন্যমাত্রা যুক্ত করছেন। আনন্দধারা আর্টসের এই আয়োজন দর্শক–শ্রোতাদের যোগে সুন্দর ও সমৃদ্ধ হয়ে উঠুক, এমনটাই তাদের কামনা।

দূর পরবাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন