বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এ আয়োজনের মাধ্যমে বাঙালি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের সঙ্গে পরিচিত হতে পেরে এ দেশে বেড়ে ওঠা প্রজন্ম আনন্দ প্রকাশ করেছে। অনুষ্ঠানে দেখা গেছে, নানা বয়সী দর্শনার্থীদের ভিড়। রং ছড়ানো সাজে এসেছে পরিবার-পরিজন ও বন্ধুবান্ধব মিলে। নারীদের পরনে সাদার মধ্যে নকশা করা শাড়ি। তাঁদের মাথায় ফুলের টায়রা। উজ্জ্বল পোশাকে ছিল শিশুরা। পুরুষেরা পরেছেন সাদা পাঞ্জাবি। অনেকের গায়ে ছিল ফতুয়া। এ অনুষ্ঠানে এসে মনে হয়েছে, এ যেন মিশিগানের বুকে একখণ্ড বাংলাদেশ।

পূর্নেন্দু চক্রবর্তী অপু ও অজিত দাশের পরিচালনায় পরিবেশিত হয়েছে ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘শিবানন্দ’। অলক চৌধুরীর প্রেমপত্র ও জিতেন গোপের উল্টাপাল্টা খবর দর্শকদের দারুণ আনন্দ দিয়েছে। ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানে পুরষ্কার তুলে দেন সেন্ট্রাল মিশিগান ইউনিভার্সিটির সহযোগী অধ্যাপক দেবাশীষ মৃধা ও তাঁর সহধর্মিনী সুপ্রভাত মিশিগান নিউজ পোর্টালের সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি চিনু মৃধা। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ছিলেন রতন হাওলাদার ও সৌরভ চৌধুরী।

কবিতা আবৃত্তি করেন দেবাশীষ মৃধা, দেবাশীষ দাশ, আশীষ মজুমদার, তন্ময় আচার্য্য, তাপস দে, মিল্টন বড়ুয়া, জনা দাশ, জিতেন্দ্র গোপ, প্রতিভা চৌধুরী, অজিত দাশ, মৌমি দে ও মুগ্ধ দে।

গান পরিবেশন করেন শেয়শ্রী পাল, অতশী চৌধুরী, শ্রদ্ধা হাওলাদার, শ্রুতি হাওলাদার, অমিতা মৃধা, অজিত দাশ, সুস্মিতা চৌধুরী, সঙ্গীতা পাল, মানষী বন্যা, চিনু মৃধা, কাবেরি দে, অপূর্ব চৌধুরী, সুমিত রোদ্দুরসহ স্থানীয় শিল্পীরা। নৃত্য করে মৃত্তিকা সরকার ও অর্পিতা সেন। এ ছাড়া চমৎকার কোরিওগ্রাফির জন্য অন্তরা অন্তিকে মেডেল ও সনদপত্র প্রদান করা হয়।

*লেখক: সৈয়দ আসাদুজ্জামান সুহান, কবি, প্রাবন্ধিক ও সংবাদকর্মী

দূর পরবাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন