default-image

শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে উদ্বোধন হলো আরেকটি নতুন মাতৃভাষা স্মৃতিসৌধ। আজ ২১ ফেব্রুয়ারি অমর একুশে উদযাপনের অংশ হিসেবে সিডনির বাঙালিপাড়াখ্যাত লাকেম্বার নিকটবর্তী বেলমোরের পিল পার্কে উন্মোচিত হয় এই স্মৃতিসৌধ। নতুন এ মাতৃভাষা স্মৃতিসৌধটি উদ্বোধন করেন ক্যান্টারবারি ব্যাংকসটাউন সিটি কাউন্সিলের মেয়র খাল আশফোর। সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় ফেডারেল সাংসদ টনি বার্ক। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রতি সম্মান ও ভাষার নিদর্শক হিসেবে স্মৃতিসৌধটি নির্মাণ করা হয়েছে। নামফলকে বাংলাদেশের ঢাকায় ঘটে যাওয়া বায়ান্নর কথা শ্রদ্ধার সঙ্গে লিপিবদ্ধ করা হয়।  

সিডনির ক্যান্টারবারি ব্যাংকসটাউন সিটি কাউন্সিলের তত্ত্বাবধানে এই স্মৃতিসৌধের নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে। আজ সকালে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যবিধির কারণে সীমিত আকারে সিটি কাউন্সিলের বিভিন্ন প্রতিনিধিসহ স্মৃতিসৌধটি নির্মাণের উদ্যোক্তারা ও স্থানীয় কিছু বাংলাদেশি উপস্থিত ছিলেন। উন্মোচিত হওয়ার পরপরই স্মৃতিসৌধটিতে শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ছুটে আসেন সিডনির বিভিন্ন প্রান্তের বাংলাদেশিরা।

বিজ্ঞাপন

পিল পার্কের নতুন এ মাতৃভাষা স্মৃতিসৌধটির নকশায় একজন মা ও ডানে–বাঁয়ে তাঁর দুই সন্তানকে আগলে রেখেছেন এবং ওপরে বাংলাদেশের লাল-সবুজ পতাকা সাদৃশ্য প্রতীক রয়েছে। যদিও নির্মাণকাজ শুরুর আগে পৃথিবীর নকশায় বাংলা ভাষার অক্ষরসহ বিভিন্ন ভাষার অক্ষর খচিত একটি ২৮ ফুট উচ্চতার নকশা প্রস্তাবনা করা হয়েছিল। এ স্মৃতিসৌধ নির্মাণের ব্যয় ধরা হয়েছিল ১ লাখ ২০ হাজার অস্ট্রেলীয় ডলার।

এর মধ্যে বাংলাদেশিরা প্রায় ৪৩ হাজার ডলার সংগ্রহ করে কাউন্সিল তহবিলে দিয়েছে।

এর আগে ২০০৬ সালে সিডনির অ্যাশফিল্ড পার্কে বাংলাদেশিদের উদ্যোগে দেশটিতে প্রথম স্থায়ী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস স্মৃতিসৌধ নির্মিত হয়।

দূর পরবাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন