default-image

কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবিতে যথাযথ মর্যাদায় বাংলাদেশের স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে। দেশটির বাংলাদেশ হাইকমিশনের উদ্যোগে দিনব্যাপী কর্মসূচির মাধ্যমে গত বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) দিবসটি পালন করা হয়।

দিনের প্রথমে হাইকমিশন চত্বরে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করেন চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স সায়েম আহমেদ। এরপর বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পরে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা।

অনুষ্ঠানে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের কালরাতে শাহাদত বরণকারী বঙ্গবন্ধু, তাঁর পরিবারের সদস্যসহ অন্যদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া এবং তাঁদের স্মৃতির প্রতি সম্মান জানিয়ে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এ ছাড়া শোক দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়।

default-image

উন্মুক্ত আলোচনায় বক্তারা জাতির পিতার মহান কর্ম, ত্যাগ ও অবদানের কথা স্মরণ করেন। সায়েম আহমেদ তাঁর বক্তব্যে জাতির পিতার অসামান্য অবদান গভীর শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর দীর্ঘ প্রচেষ্টা, মহান কর্ম ও ত্যাগের মাধ্যমেই আমরা স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশের গর্বিত নাগরিক হয়ে আজকের এই সম্মানজনক অবস্থায় আসতে পেরেছি।’ তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে আজ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তিনি সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে এই গৌরবময় অগ্রযাত্রায় যথাযথভাবে অংশ নিতে আহ্বান জানান।

default-image

কর্মসূচির দ্বিতীয় পর্বে দূতাবাসের পার্শ্ববর্তী আজ-জাহরা মসজিদে বঙ্গবন্ধু, তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যসহ অন্য শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে এক দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। দোয়া মাহফিলের পর মসজিদ ও তৎসংলগ্ন মাদ্রাসায় পবিত্র কোরআন, হাদিস ও ধর্মীয় পুস্তক প্রদান করা হয়। বিজ্ঞপ্তি

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন